ঢাকা ১১:২৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষঃ
মৌলভীবাজারে আন্তর্জাতিক গনতন্ত্র ও মানবাধিকার সংগঠনে মনোনীত যারা জাপানের একটি জনহীন রেলওয়ে স্টেশন শুধুমাত্র এক ছাত্রীর জন্য এখনও চালু রয়েছে মুন্সীগঞ্জে পদ্মার ভাঙনে ঝুঁকিতে পুরাতন ঐতিহ্যবাহী দিঘিরপাড় বাজার শ্রীমঙ্গলে জমি সংক্রান্ত বিরোধে আইনজীবী নিহত,আহত-২ নকলায় জঙ্গিবাদ ও মাদকাসক্ত প্রতিরোধে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান কুলাউড়ায় আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর দেওয়ার নামে ভিক্ষুকের অর্থ আত্মসাৎ মাথিউড়া চা শ্রমিকদের বকেয়া মজুরি পরিশোধের দাবি: চা শ্রমিক ফেডারেশন মৌলভীবাজারে বন্যার পানি না নামায়, ২৩৫ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠদান বন্ধ  সোনারগাঁয়ে ঔষধের দোকানে দুর্ধর্ষ চুরি: ৭০ হাজার টাকা নিয়ে চম্পট নকলার ইউএনও শুদ্ধাচার পুরস্কার পাওয়ায় যুবফোরামের সম্মাননা স্মারক প্রদান

বিপদসীমার উপরে প্রবাহিত হচ্ছে মৌলভীবাজারের নদ-নদীর পানি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:৩০:০৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ জুলাই ২০২৪ ৪৩ বার পড়া হয়েছে
তিমির বনিক,মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:
উজানের ঢল আর ভারী বৃষ্টিপাতে মৌলভীবাজার জেলার তিনটি নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। যার কারণে নদী তীরবর্তী লোকালয়ের তিন লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। বুধবার (৩রা জুলাই) দুপুর ২টা পর্যন্ত মৌলভীবাজার জেলার মনু, কুশিয়ারা ও জুড়ী নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রভাহিত হচ্ছে।
পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) সূত্রে জানা যায়, দুপুর ২টায় মনু নদীর পানি রেলওয়ে ব্রিজে বিপৎসীমার ১০ সেন্টিমিটার, চাঁদনীঘাট ব্রিজে বিপৎসীমার ৫০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ধলাই নদীর পানি রেলওয়ে ব্রিজের বিপৎসীমার ১৬৮ সেন্টিমিটার নিচে প্রবাহিত হচ্ছে। কুশিয়ারা নদী শেরপুর ব্রিজের বিপৎসীমার ১৯ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। জুড়ী নদীর পানি বিপৎসীমার ১৯০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।
জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, মৌলভীবাজার জেলার পাঁচটি উপজেলায় বন্যা কবলিত হয়েছে। তিন লক্ষাধিক মানুষ বন্যাকবলিত হয়ে পড়েছেন।
মৌলভীবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জাবেদ ইকবাল বলেন, ভারী বর্ষণ ও উজানের পাহাড়ি ঢল নামার কারণে নদ-নদী ও হাওরের পানি আবারও বাড়ছে। কুলাউড়া ও জুড়ীর পানি হাকালুকি হাওরে গিয়ে পড়ে। কিন্তু হাওরের পানি ধীর গতিতে নামছে। ওই হাওরের পানি নামে কুশিয়ারা নদী দিয়ে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

বিপদসীমার উপরে প্রবাহিত হচ্ছে মৌলভীবাজারের নদ-নদীর পানি

আপডেট সময় : ০৪:৩০:০৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ জুলাই ২০২৪
তিমির বনিক,মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:
উজানের ঢল আর ভারী বৃষ্টিপাতে মৌলভীবাজার জেলার তিনটি নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। যার কারণে নদী তীরবর্তী লোকালয়ের তিন লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। বুধবার (৩রা জুলাই) দুপুর ২টা পর্যন্ত মৌলভীবাজার জেলার মনু, কুশিয়ারা ও জুড়ী নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রভাহিত হচ্ছে।
পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) সূত্রে জানা যায়, দুপুর ২টায় মনু নদীর পানি রেলওয়ে ব্রিজে বিপৎসীমার ১০ সেন্টিমিটার, চাঁদনীঘাট ব্রিজে বিপৎসীমার ৫০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ধলাই নদীর পানি রেলওয়ে ব্রিজের বিপৎসীমার ১৬৮ সেন্টিমিটার নিচে প্রবাহিত হচ্ছে। কুশিয়ারা নদী শেরপুর ব্রিজের বিপৎসীমার ১৯ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। জুড়ী নদীর পানি বিপৎসীমার ১৯০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।
জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, মৌলভীবাজার জেলার পাঁচটি উপজেলায় বন্যা কবলিত হয়েছে। তিন লক্ষাধিক মানুষ বন্যাকবলিত হয়ে পড়েছেন।
মৌলভীবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জাবেদ ইকবাল বলেন, ভারী বর্ষণ ও উজানের পাহাড়ি ঢল নামার কারণে নদ-নদী ও হাওরের পানি আবারও বাড়ছে। কুলাউড়া ও জুড়ীর পানি হাকালুকি হাওরে গিয়ে পড়ে। কিন্তু হাওরের পানি ধীর গতিতে নামছে। ওই হাওরের পানি নামে কুশিয়ারা নদী দিয়ে।