ঢাকা ০৩:৩১ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টেকনাফে স্মার্ট ভূমি সেবা সপ্তাহ উদ্বোধন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৩৫:৪৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ জুন ২০২৪ ১৪ বার পড়া হয়েছে
ফরহাদ রহমান,টেকনাফ প্রতিনিধি।।
স্মার্ট ভূমি সেবা, স্মার্ট নাগরিককে সামনে রেখে টেকনাফ উপজেলা ভূমি অফিস কর্তৃক আয়োজিত উৎসবমুখর পরিবেশে ভূমিসেবা সপ্তাহ উদ্বোধন করা হয়েছে।
৮ জুন’২৪ সকাল ১০ টায় ভূমি অফিসের সামনে এ ভূমি সেবা সপ্তাহ উদ্বোধন করা হয়।
ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো: হেলাল উদ্দিনের পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন টেকনাফ উপজেলা সহকারি কমিশনার ভূমি ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ সাফকাত চৌধুরী।
এসময় বক্তব্য রাখেন,টেকনাফ মডেল থানার ওসি তদন্ত আব্দুল্লাহ আল মামুন, টেকনাফ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ হাবিবুর রহমান, টেকনাফ উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা সাইফুল্লাহ হাবিব,টেকনাফ মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাঁশি রাম দে,সাংবাদিক আশেক উল্লাহ ফারুকী,টেকনাফ উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক নুরুল হোসাইন,বিজয় টিভির টেকনাফ প্রতিনিধি সাইফুদ্দীন মোহাম্মদ মামুন প্রমূখ।
এ সময় টেকনাফ উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক মোঃ আজিজ উল্লাহ আজিজ,দৈনিক যুগান্ত পত্রিকার টেকনাফ প্রতিনিধি নাছির উদ্দিন রাজ,সাংবাদিক জসিম উদ্দিন ইমন,উপকারভোগীরা, সেবাপ্রার্থীরা, সহকারী কমিশনার ভূমি অফিসের কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।
টেকনাফ উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক নুরুল হোসাইন বক্তব্যে বলেন, ভূমি অফিসে টাকা ছাড়া ফাইল নড়ে না। ভূমি অফিসের কর্মচারীদের নেতৃত্বে একটি চক্র গড়ে উঠেছে। চক্রের সদস্যরা জমির নামজারি আবেদনপত্র জমা নেওয়ার নামে বাড়তি টাকা আদায় করছেন। টাকা না দিলে নথি গায়েব করে হয়রানি করা হচ্ছে।
স্থানীয় কিছু লোকজন ভূমি অফিসে তাদের নেতৃত্বে দীর্ঘদিন ধরে মানুষকে জিম্মি করে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। কোনো ব্যক্তি বাইরে থেকে অনলাইনে নামজারির আবেদন করে অফিসে জমা দিতে গেলে সরকার নির্ধারিত ৭০ টাকার সঙ্গে অতিরিক্ত ৫০০ টাকা আদায় করা হয়। আর যদি কেউ টাকা না দেন তাহলে তার ফাইল উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বা এসি ল্যান্ডের টেবিলে পৌঁছায় না। তখন কাগজপত্র না পেয়ে নামজারির আবেদন নামঞ্জুর করে দেওয়া হয়। এ ব্যপারে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন সভাপতি নুরুল হোসাইন।
প্রধান অতিথি উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ সাফকাত চৌধুরী বলেন, আজ থেকে ১৪ই জুন পর্যন্ত এ ভূমিসেবা সপ্তাহ চলবে। তবে এখন ভূমিসেবা নেওয়া এখন সহজ। ঘরে বসে ভূমিসেবা নেওয়া যায়। ভূমি অফিসে দালালের স্থান হবেনা। আপনারা দালাল ছাড়া বিনামূল্যে সকল ধরনের সেবা নিবেন। এছাড়াও স্মার্ট ভূমিসেবার মূল অংশীজন হিসেবে দেশের জনগণকে সম্পৃক্ত করা, স্মার্ট ভূমিসেবা বিষয়ে সকলকে পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে অবগত করা ও ভূমি সেবা পাওয়ার ক্ষেত্রে নিজ নাগরিক অধিকারের ব্যাপারের সকলের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করাই এ বছরের ভূমিসেবা সপ্তাহের মূল লক্ষ্য। পরিশেষে আমি বলতে চাই সরকারি ঘর পেয়েও দীর্ঘদিন ধরে এ ঘরে থাকেননা বা নিজস্ব ঘরবাড়ী থাকার কারণেও সরকারী ঘর পাওয়ায় ঘরে ১দিনের জন্যও যাননি তাদের অনেকের বিরুদ্ধে অভিযোগ পেয়ে এ অভিযোগ যাচাই-বাছাই চলছে। তদন্ত সাপেক্ষে সত্যতা প্রমাণিত হলে তাদের ঘর বাতিল করে গৃহহীন ও ভূমিহীনদের এ ঘরগুলো পর্যায়ক্রমে দিয়ে দেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

টেকনাফে স্মার্ট ভূমি সেবা সপ্তাহ উদ্বোধন

আপডেট সময় : ১২:৩৫:৪৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ জুন ২০২৪
ফরহাদ রহমান,টেকনাফ প্রতিনিধি।।
স্মার্ট ভূমি সেবা, স্মার্ট নাগরিককে সামনে রেখে টেকনাফ উপজেলা ভূমি অফিস কর্তৃক আয়োজিত উৎসবমুখর পরিবেশে ভূমিসেবা সপ্তাহ উদ্বোধন করা হয়েছে।
৮ জুন’২৪ সকাল ১০ টায় ভূমি অফিসের সামনে এ ভূমি সেবা সপ্তাহ উদ্বোধন করা হয়।
ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো: হেলাল উদ্দিনের পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন টেকনাফ উপজেলা সহকারি কমিশনার ভূমি ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ সাফকাত চৌধুরী।
এসময় বক্তব্য রাখেন,টেকনাফ মডেল থানার ওসি তদন্ত আব্দুল্লাহ আল মামুন, টেকনাফ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ হাবিবুর রহমান, টেকনাফ উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা সাইফুল্লাহ হাবিব,টেকনাফ মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাঁশি রাম দে,সাংবাদিক আশেক উল্লাহ ফারুকী,টেকনাফ উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক নুরুল হোসাইন,বিজয় টিভির টেকনাফ প্রতিনিধি সাইফুদ্দীন মোহাম্মদ মামুন প্রমূখ।
এ সময় টেকনাফ উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক মোঃ আজিজ উল্লাহ আজিজ,দৈনিক যুগান্ত পত্রিকার টেকনাফ প্রতিনিধি নাছির উদ্দিন রাজ,সাংবাদিক জসিম উদ্দিন ইমন,উপকারভোগীরা, সেবাপ্রার্থীরা, সহকারী কমিশনার ভূমি অফিসের কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।
টেকনাফ উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক নুরুল হোসাইন বক্তব্যে বলেন, ভূমি অফিসে টাকা ছাড়া ফাইল নড়ে না। ভূমি অফিসের কর্মচারীদের নেতৃত্বে একটি চক্র গড়ে উঠেছে। চক্রের সদস্যরা জমির নামজারি আবেদনপত্র জমা নেওয়ার নামে বাড়তি টাকা আদায় করছেন। টাকা না দিলে নথি গায়েব করে হয়রানি করা হচ্ছে।
স্থানীয় কিছু লোকজন ভূমি অফিসে তাদের নেতৃত্বে দীর্ঘদিন ধরে মানুষকে জিম্মি করে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। কোনো ব্যক্তি বাইরে থেকে অনলাইনে নামজারির আবেদন করে অফিসে জমা দিতে গেলে সরকার নির্ধারিত ৭০ টাকার সঙ্গে অতিরিক্ত ৫০০ টাকা আদায় করা হয়। আর যদি কেউ টাকা না দেন তাহলে তার ফাইল উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বা এসি ল্যান্ডের টেবিলে পৌঁছায় না। তখন কাগজপত্র না পেয়ে নামজারির আবেদন নামঞ্জুর করে দেওয়া হয়। এ ব্যপারে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন সভাপতি নুরুল হোসাইন।
প্রধান অতিথি উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ সাফকাত চৌধুরী বলেন, আজ থেকে ১৪ই জুন পর্যন্ত এ ভূমিসেবা সপ্তাহ চলবে। তবে এখন ভূমিসেবা নেওয়া এখন সহজ। ঘরে বসে ভূমিসেবা নেওয়া যায়। ভূমি অফিসে দালালের স্থান হবেনা। আপনারা দালাল ছাড়া বিনামূল্যে সকল ধরনের সেবা নিবেন। এছাড়াও স্মার্ট ভূমিসেবার মূল অংশীজন হিসেবে দেশের জনগণকে সম্পৃক্ত করা, স্মার্ট ভূমিসেবা বিষয়ে সকলকে পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে অবগত করা ও ভূমি সেবা পাওয়ার ক্ষেত্রে নিজ নাগরিক অধিকারের ব্যাপারের সকলের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করাই এ বছরের ভূমিসেবা সপ্তাহের মূল লক্ষ্য। পরিশেষে আমি বলতে চাই সরকারি ঘর পেয়েও দীর্ঘদিন ধরে এ ঘরে থাকেননা বা নিজস্ব ঘরবাড়ী থাকার কারণেও সরকারী ঘর পাওয়ায় ঘরে ১দিনের জন্যও যাননি তাদের অনেকের বিরুদ্ধে অভিযোগ পেয়ে এ অভিযোগ যাচাই-বাছাই চলছে। তদন্ত সাপেক্ষে সত্যতা প্রমাণিত হলে তাদের ঘর বাতিল করে গৃহহীন ও ভূমিহীনদের এ ঘরগুলো পর্যায়ক্রমে দিয়ে দেওয়া হবে।