ঢাকা ০৪:২৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিদ্ধিরগঞ্জে সিআই খোলা লেক থেকে যুবকের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার 

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:১২:৪০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১ জুন ২০২৪ ১২ বার পড়া হয়েছে
মো.লিটন চৌধুরী,সিদ্ধিরগঞ্জ(না’গঞ্জ)প্রতিনিধি।।
নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের মো. মহাসিন(৩৯) নামের এক ব্যক্তির অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মৃতদেহটি প্রায় তিন দিন যাবত পড়েছিল বলে ধারণা করছেন পুলিশের।
শনিবার (০১ জুন) সকালে ডিএনডি খালের সি.আই.খোলা অংশ থেকে যুবকের মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয়েছে।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মোজাম্মেল হক।
জানা গেছে, নিহত ওই যুবক (নাসিক) ৪ নং ওয়ার্ডস্থ হাউজিং এলাকার ৫ নাম্বার রোডের ভাঙ্গারী ব্যবসায়ী মুজিবরের ছেলে।
পুলিশ জানিয়েছে, নিহত যুবকের পকেটে থাকা একটি ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়া গেছে।শনিবার ভোরে ডিএনডি লেক থেকে দুর্গন্ধ ছড়ালে আশপাশের ভাড়াটিয়ারা পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ দেখতে পান।
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক মো. মোজাম্মেল হক বলেন, খবর পেয়ে নিহত যুবকের  মরদেহটি থানা পুলিশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে পাঠানো হয়।তবে মৃতদের শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন নেই। ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ বলা যাবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

সিদ্ধিরগঞ্জে সিআই খোলা লেক থেকে যুবকের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার 

আপডেট সময় : ০৭:১২:৪০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১ জুন ২০২৪
মো.লিটন চৌধুরী,সিদ্ধিরগঞ্জ(না’গঞ্জ)প্রতিনিধি।।
নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের মো. মহাসিন(৩৯) নামের এক ব্যক্তির অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মৃতদেহটি প্রায় তিন দিন যাবত পড়েছিল বলে ধারণা করছেন পুলিশের।
শনিবার (০১ জুন) সকালে ডিএনডি খালের সি.আই.খোলা অংশ থেকে যুবকের মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয়েছে।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মোজাম্মেল হক।
জানা গেছে, নিহত ওই যুবক (নাসিক) ৪ নং ওয়ার্ডস্থ হাউজিং এলাকার ৫ নাম্বার রোডের ভাঙ্গারী ব্যবসায়ী মুজিবরের ছেলে।
পুলিশ জানিয়েছে, নিহত যুবকের পকেটে থাকা একটি ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়া গেছে।শনিবার ভোরে ডিএনডি লেক থেকে দুর্গন্ধ ছড়ালে আশপাশের ভাড়াটিয়ারা পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ দেখতে পান।
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক মো. মোজাম্মেল হক বলেন, খবর পেয়ে নিহত যুবকের  মরদেহটি থানা পুলিশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে পাঠানো হয়।তবে মৃতদের শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন নেই। ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ বলা যাবে।