ঢাকা ০১:৪২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সোনারগাঁয়ে পুলিশের টর্চারে নুর ইসলাম নামের এক ব্যক্তির মৃত্যুর অভিযোগ 

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:৪৪:২৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ৬ নভেম্বর ২০২৩ ৩৩৬ বার পড়া হয়েছে

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি♦♦

 

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও মাদক ব্যবসায়ীর আখ্যা দিয়ে নুর ইসলাম নামের এক ব্যক্তিকে পুলিশের টর্চারে মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে।

৬ নভেম্বর(সোমবার) রাতে সোনারগাঁয়ের জামপুর ইউনিয়নের বুরুন্দী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পর স্থানীয়রা পুলিশকে ২ ঘন্টা আটক করে রাখে। পরবর্তীতে সোনারগাঁও থানার ওসি ও সার্কেল এএসপি এসে তাদের কে উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

জানা গেছে, নিহত নুর ইসলাম সোনারগাঁও উপজেলার জামপুর এলাকার মৃত ফালু মিয়ার ছেলে।

পরিবারের দাবী, শারীরিকভাবে চলাচল অসুস্থ ছিল সে। হার্টে রিং পরানো ছিল। পুলিশ বাড়িতে ঢুকে টাকা না দিলে মামলা দিয়ে চালান দেওয়ার হুমকি দেয়। পরবর্তীতে পরিবারের লোকজন পুলিশকে টাকা দিলেও তারা আরো টাকা দাবি করে। তাঁদের এমন অবৈধ কর্মকাণ্ড সোনারগাঁ থানার (ওসি) মাহাবুব আলমের নেতৃত্বেই হয়ে থাকে। মূলত থানার ওসি’র হুকুম ছাড়া এধরনের কর্মকাণ্ড একজন পুলিশ সদস্য করতে পারে না। পুলিশের সাথে থাকা ফরমা উপনির সদস্য তাঁকে শারীরিকভাবে আঘাত করলে ঘটনাস্থলে তাঁর মৃত্যু হয়।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (খ- সার্কেল) বিল্লাল হোসেন সমকালীন কাগজকে জানান, ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ ঘটনায় সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাবুব আলম জানান, জামপুর এলাকায় নুর ইসলাম নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে ধরার জন্য তাঁর বাসায় অভিযান চালায় তালতলা এএসআই ইলিয়াস, কনষ্টেবল কালাম সহ ৩ সদস্য  এবং তাঁকে আটক করে। পরবর্তীতে আসামি অসুস্থ জানতে পেরে তাঁকে ছেড়ে দিয়ে পুলিশ চলে আসে। এরপর ওই আসামির মৃত্যুর খবর পেয়ে তারা ওই বাড়িতে গেলে কিছু উচ্ছৃঙ্খল লোকজন পুলিশকে জড়িয়ে বিভিন্ন মন্তব্য করে। পরে আমি ও সার্কেল এএসপি সহ পরিবারের সদস্যদের বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে অথবা আপনারা যেটা ভালো মনে করবেন সেটাই করা হবে বলে ওসি পরিস্থিতি শান্ত করে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

সোনারগাঁয়ে পুলিশের টর্চারে নুর ইসলাম নামের এক ব্যক্তির মৃত্যুর অভিযোগ 

আপডেট সময় : ০৬:৪৪:২৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ৬ নভেম্বর ২০২৩

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি♦♦

 

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও মাদক ব্যবসায়ীর আখ্যা দিয়ে নুর ইসলাম নামের এক ব্যক্তিকে পুলিশের টর্চারে মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে।

৬ নভেম্বর(সোমবার) রাতে সোনারগাঁয়ের জামপুর ইউনিয়নের বুরুন্দী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পর স্থানীয়রা পুলিশকে ২ ঘন্টা আটক করে রাখে। পরবর্তীতে সোনারগাঁও থানার ওসি ও সার্কেল এএসপি এসে তাদের কে উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

জানা গেছে, নিহত নুর ইসলাম সোনারগাঁও উপজেলার জামপুর এলাকার মৃত ফালু মিয়ার ছেলে।

পরিবারের দাবী, শারীরিকভাবে চলাচল অসুস্থ ছিল সে। হার্টে রিং পরানো ছিল। পুলিশ বাড়িতে ঢুকে টাকা না দিলে মামলা দিয়ে চালান দেওয়ার হুমকি দেয়। পরবর্তীতে পরিবারের লোকজন পুলিশকে টাকা দিলেও তারা আরো টাকা দাবি করে। তাঁদের এমন অবৈধ কর্মকাণ্ড সোনারগাঁ থানার (ওসি) মাহাবুব আলমের নেতৃত্বেই হয়ে থাকে। মূলত থানার ওসি’র হুকুম ছাড়া এধরনের কর্মকাণ্ড একজন পুলিশ সদস্য করতে পারে না। পুলিশের সাথে থাকা ফরমা উপনির সদস্য তাঁকে শারীরিকভাবে আঘাত করলে ঘটনাস্থলে তাঁর মৃত্যু হয়।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (খ- সার্কেল) বিল্লাল হোসেন সমকালীন কাগজকে জানান, ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ ঘটনায় সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাবুব আলম জানান, জামপুর এলাকায় নুর ইসলাম নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে ধরার জন্য তাঁর বাসায় অভিযান চালায় তালতলা এএসআই ইলিয়াস, কনষ্টেবল কালাম সহ ৩ সদস্য  এবং তাঁকে আটক করে। পরবর্তীতে আসামি অসুস্থ জানতে পেরে তাঁকে ছেড়ে দিয়ে পুলিশ চলে আসে। এরপর ওই আসামির মৃত্যুর খবর পেয়ে তারা ওই বাড়িতে গেলে কিছু উচ্ছৃঙ্খল লোকজন পুলিশকে জড়িয়ে বিভিন্ন মন্তব্য করে। পরে আমি ও সার্কেল এএসপি সহ পরিবারের সদস্যদের বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে অথবা আপনারা যেটা ভালো মনে করবেন সেটাই করা হবে বলে ওসি পরিস্থিতি শান্ত করে।