ঢাকা ০৩:১৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গাজীপুরে নৌকারই জয় হয়েছে, পরাজয় হয়েছে ব্যক্তির: জাহাঙ্গীর

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:১০:৩০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ মে ২০২৩ ১০২ বার পড়া হয়েছে

মাকে সঙ্গে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে যাবেন জাহাঙ্গীর,জন্মের পর থেকেই আওয়ামী লীগের রাজনীতি করে আসছি,নীতি পরিবর্তন করা আমার পক্ষে সম্ভব হবে না!

 

বিশেষ প্রতিনিধি।।

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন(গাসিক) নির্বাচনে জায়েদা খাতুন নগর মাতা নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে তার ছেলে জাহাঙ্গীর আলম প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

তিনি বলেন,এখানে নৌকারই জয় হয়েছে, পরাজয় হয়েছে নাম মাত্র ব্যক্তির । মাকে সঙ্গে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে যাবেন বলেও স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার দিনগত রাত দেড়টার পর জেলা পরিষদের ভবনের বঙ্গতাজ মিলনায়তনে‘ফলাফল সংগ্রহ ও পরিবেশন কেন্দ্র’র বাইরে তিনি সাংবাদিকদের এসকল কথা বলেন।

প্রসঙ্গত, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন(গাসিক) নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জায়েদা খাতুন টেবিল ঘড়ি প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২ লাখ ৩৮ হাজার ৯৩৪ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের আজমত উল্লা খান নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ২ লাখ ২২ হাজার ৭৩৭ ভোট। ১৬ হাজার ১৯৭ ভোটের ব্যবধানে জয় পেয়েছেন জায়েদা খাতুন।

নতুন মেয়র নগর মাতা হিসেবে জায়েদা খাতুনে নাম ঘোষণা হওয়ার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বলেন,তার মা বলেছে,সবাইকে নিয়ে সিটি কর্পোরেশনের উন্নয়নে কাজ করবেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করবেন। প্রধানমন্ত্রী আমাদের গার্ডিয়ান। দেশের উন্নয়নে তাকে আমরা সহযোগিতা করতে চাই।

তিনি বলেন, আমি জন্মের পর থেকেই আওয়ামী লীগের রাজনীতি করে আসছি,নীতি পরিবর্তন করা আমার পক্ষে সম্ভব হবে না। আমি এখানকার আওয়ামী লীগের পরীক্ষিত ব্যক্তি। মানুষ আমার এবং মায়ের পাশে দাঁড়িয়েছে। আমি ও আমার মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে যাব। আমরা সবার সহযোগিতা নিয়ে একটা সুন্দর শহর গড়ে তুলব বলে এ প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।’

তিনি বলেন, আমি মায়ের কর্মী হিসেবে তার কাজে সহযোগিতা করব। আমি আমার মেয়র থাকাকালীন অভিজ্ঞতা দিয়ে গাজীপুরের জন্য কাজ করব। মায়ের সঙ্গে থেকে গাজীপুরকে সুপরিকল্পিত নগরী করে গড়ব। কোনো সন্ত্রাসীর কাছে মাথা নত করব না।

সাংবাদিক ও গাজীপুরবাসীর প্রতি অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, আল্লাহ্ রওয়াস্তে আমাকে আর আমার পরিবারকে নিয়ে কেউ আর কোনো মিথ্যা কথা লিখবেন না, মিথ্যা ছড়াবেন না।
আওয়ামী লীগের নৌকার মনোনীত মেয়র প্রার্থী আজমত উল্লাহ খানকে উদ্দেশ্য করে সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আমার বড়ভাই আজমত উল্লা খানসহ অনেকেই এখানে নির্বাচন করেছেন। আমাদের ব্যক্তিগতভাবে কারও প্রতি কোনো ধরনের রাগ,ক্ষোভ নাই। আমরা সবাইকে এবং সকলের ঐকান্তিক সহযোগীতা নিয়ে একসঙ্গে একযোগে নগর আধুনিকায়নে ও উন্নয়নে কাজ করতে চাই।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

গাজীপুরে নৌকারই জয় হয়েছে, পরাজয় হয়েছে ব্যক্তির: জাহাঙ্গীর

আপডেট সময় : ০৬:১০:৩০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ মে ২০২৩

মাকে সঙ্গে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে যাবেন জাহাঙ্গীর,জন্মের পর থেকেই আওয়ামী লীগের রাজনীতি করে আসছি,নীতি পরিবর্তন করা আমার পক্ষে সম্ভব হবে না!

 

বিশেষ প্রতিনিধি।।

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন(গাসিক) নির্বাচনে জায়েদা খাতুন নগর মাতা নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে তার ছেলে জাহাঙ্গীর আলম প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

তিনি বলেন,এখানে নৌকারই জয় হয়েছে, পরাজয় হয়েছে নাম মাত্র ব্যক্তির । মাকে সঙ্গে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে যাবেন বলেও স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার দিনগত রাত দেড়টার পর জেলা পরিষদের ভবনের বঙ্গতাজ মিলনায়তনে‘ফলাফল সংগ্রহ ও পরিবেশন কেন্দ্র’র বাইরে তিনি সাংবাদিকদের এসকল কথা বলেন।

প্রসঙ্গত, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন(গাসিক) নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জায়েদা খাতুন টেবিল ঘড়ি প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২ লাখ ৩৮ হাজার ৯৩৪ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের আজমত উল্লা খান নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ২ লাখ ২২ হাজার ৭৩৭ ভোট। ১৬ হাজার ১৯৭ ভোটের ব্যবধানে জয় পেয়েছেন জায়েদা খাতুন।

নতুন মেয়র নগর মাতা হিসেবে জায়েদা খাতুনে নাম ঘোষণা হওয়ার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বলেন,তার মা বলেছে,সবাইকে নিয়ে সিটি কর্পোরেশনের উন্নয়নে কাজ করবেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করবেন। প্রধানমন্ত্রী আমাদের গার্ডিয়ান। দেশের উন্নয়নে তাকে আমরা সহযোগিতা করতে চাই।

তিনি বলেন, আমি জন্মের পর থেকেই আওয়ামী লীগের রাজনীতি করে আসছি,নীতি পরিবর্তন করা আমার পক্ষে সম্ভব হবে না। আমি এখানকার আওয়ামী লীগের পরীক্ষিত ব্যক্তি। মানুষ আমার এবং মায়ের পাশে দাঁড়িয়েছে। আমি ও আমার মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে যাব। আমরা সবার সহযোগিতা নিয়ে একটা সুন্দর শহর গড়ে তুলব বলে এ প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।’

তিনি বলেন, আমি মায়ের কর্মী হিসেবে তার কাজে সহযোগিতা করব। আমি আমার মেয়র থাকাকালীন অভিজ্ঞতা দিয়ে গাজীপুরের জন্য কাজ করব। মায়ের সঙ্গে থেকে গাজীপুরকে সুপরিকল্পিত নগরী করে গড়ব। কোনো সন্ত্রাসীর কাছে মাথা নত করব না।

সাংবাদিক ও গাজীপুরবাসীর প্রতি অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, আল্লাহ্ রওয়াস্তে আমাকে আর আমার পরিবারকে নিয়ে কেউ আর কোনো মিথ্যা কথা লিখবেন না, মিথ্যা ছড়াবেন না।
আওয়ামী লীগের নৌকার মনোনীত মেয়র প্রার্থী আজমত উল্লাহ খানকে উদ্দেশ্য করে সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আমার বড়ভাই আজমত উল্লা খানসহ অনেকেই এখানে নির্বাচন করেছেন। আমাদের ব্যক্তিগতভাবে কারও প্রতি কোনো ধরনের রাগ,ক্ষোভ নাই। আমরা সবাইকে এবং সকলের ঐকান্তিক সহযোগীতা নিয়ে একসঙ্গে একযোগে নগর আধুনিকায়নে ও উন্নয়নে কাজ করতে চাই।