ঢাকা ১২:৪১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘কান’ ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে সানি লিওন অভিনীত কেনেডি’মুভি জায়গা করে নিয়েছে

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:৫৬:১১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ মে ২০২৩ ৮৪ বার পড়া হয়েছে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।

এক সময়ের বিশ্ব কাপানো সুপার স্টার পর্নতারকা খ্যাত সানি লিওন বলিউডে এক দশকের বেশি সময় পার করে ফেলেছেন। তবে এক্ষেত্রে বলিউডে জায়গা করে নেওয়া মোটেও বিষয় সহজ ছিলো না তার জন্য,বেশ কঠিন ছিলো বটে। সেই কঠিন পথ পাড়ি দিয়ে সানি লিওন অভিনীত ‘কেনেডি’ ৭৬তম কান চলচ্চিত্র উৎসবে জায়গা করে নিয়েছে। বিশ্বের অন্যতম সমাদৃত ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল এটি। তার এ মুভিটি পরিচালনা করেছেন অনুরাগ কাশ্যপ। 
এই মুভিতে সানীর দেখা মিলেছে‘নেভার সিন বিফোর’ অবতারে। তার চরিত্রের নাম ছিলো চার্লি। চলতি বছরের কান চলচ্চিত্র উৎসবের মিডনাইট স্ক্রিনিং বিভাগে প্রদর্শিত হয়েছে ‘কেনেডি’নামের সানি লিওন অভিনীত মুভিটি। ছবির প্রিমিয়ারে শ্যাম্পনে রঙা থাই-হাই স্লিট পোশাকে বরাবরের মতোই দর্শক নজর কেড়েছেন সানি লিওন, অন্যদিকে পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপেরও দেখা মিলেছে কালো বন্ধগলা স্যুটে।

কান ফেস্টিভ্যালে এমন সাফল্যের পর ফোর্বস ইন্ডিয়ার সঙ্গে একান্ত আলাপচারিতায় সানি লিওন জানায়,গত কয়েক বছরে মেনস্ট্রিম ছবির জগতে জায়গা করে নেওয়াটা চ্যালেঞ্জিং একটা অপসন ছিল তার কাছে। বহু সমালোচনা,কটূক্তি শুনতে হয়েছে তাকে সে কথাও বলেন তিনি।
সানি বলেন,আমি বিশ্বাস করি কর্মে। অনেক মানুষজন বলেছেন, তুমি এটা করতে পারবে না, তুমি এটার যোগ্য নও। এমনও বলছে,তুমি সানি লিওন,তুমি শুধুই ছবিতে গ্ল্যামার বাড়াতে পারো। এই সব কথা আমি বছরের পর বছর ধরে শুনে হজম করে আসছি,আর না। এখন আর লোকজন আমার অতীত নিয়ে কোনো ধরনের কথা বলতে পারবে না। কেউ বলতে পারবে না আমার অতীতের জন্য আমি এই ছবিতে কাজ পেয়েছি,কিংবা এই ছবিতে শুধুই গ্ল্যামার বাড়িয়েছি।’

যদিও সব সমালোচনা-কটূক্তি হজম করে এগিয়ে যাওয়ার নামই হচ্ছে জীবন, তা উপলব্ধি করেছেন সানি। কিন্তু নায়িকার কথায়, ‘এই কথাগুলো আমাকে কষ্ট দেয়, প্রভাবিত করে কিন্তু এন্টারটেনার হিসাবে সেই আবেগ আমি বাইরে আনতে পারি না’। কেনেডি’ ছবিতে অনিদ্রা রোগে ভোগা এক প্রাক্তন পুলিশ অফিসারের গল্প উঠে এসেছে। দুনিয়ার চোখে বহুদিন আগেই মৃত তিনি, তবে দুর্নীতিগ্রস্ত সমাজ ব্যবস্থার বিরুদ্ধে অগোচরেই লড়াই চালাচ্ছেন তিনি। সানি ছাড়াও ছবিতে অভিনয় করেছেন রাহুল ভাট।

সূত্র:হিন্দুস্তান টাইমস।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

‘কান’ ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে সানি লিওন অভিনীত কেনেডি’মুভি জায়গা করে নিয়েছে

আপডেট সময় : ০৪:৫৬:১১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ মে ২০২৩

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।

এক সময়ের বিশ্ব কাপানো সুপার স্টার পর্নতারকা খ্যাত সানি লিওন বলিউডে এক দশকের বেশি সময় পার করে ফেলেছেন। তবে এক্ষেত্রে বলিউডে জায়গা করে নেওয়া মোটেও বিষয় সহজ ছিলো না তার জন্য,বেশ কঠিন ছিলো বটে। সেই কঠিন পথ পাড়ি দিয়ে সানি লিওন অভিনীত ‘কেনেডি’ ৭৬তম কান চলচ্চিত্র উৎসবে জায়গা করে নিয়েছে। বিশ্বের অন্যতম সমাদৃত ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল এটি। তার এ মুভিটি পরিচালনা করেছেন অনুরাগ কাশ্যপ। 
এই মুভিতে সানীর দেখা মিলেছে‘নেভার সিন বিফোর’ অবতারে। তার চরিত্রের নাম ছিলো চার্লি। চলতি বছরের কান চলচ্চিত্র উৎসবের মিডনাইট স্ক্রিনিং বিভাগে প্রদর্শিত হয়েছে ‘কেনেডি’নামের সানি লিওন অভিনীত মুভিটি। ছবির প্রিমিয়ারে শ্যাম্পনে রঙা থাই-হাই স্লিট পোশাকে বরাবরের মতোই দর্শক নজর কেড়েছেন সানি লিওন, অন্যদিকে পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপেরও দেখা মিলেছে কালো বন্ধগলা স্যুটে।

কান ফেস্টিভ্যালে এমন সাফল্যের পর ফোর্বস ইন্ডিয়ার সঙ্গে একান্ত আলাপচারিতায় সানি লিওন জানায়,গত কয়েক বছরে মেনস্ট্রিম ছবির জগতে জায়গা করে নেওয়াটা চ্যালেঞ্জিং একটা অপসন ছিল তার কাছে। বহু সমালোচনা,কটূক্তি শুনতে হয়েছে তাকে সে কথাও বলেন তিনি।
সানি বলেন,আমি বিশ্বাস করি কর্মে। অনেক মানুষজন বলেছেন, তুমি এটা করতে পারবে না, তুমি এটার যোগ্য নও। এমনও বলছে,তুমি সানি লিওন,তুমি শুধুই ছবিতে গ্ল্যামার বাড়াতে পারো। এই সব কথা আমি বছরের পর বছর ধরে শুনে হজম করে আসছি,আর না। এখন আর লোকজন আমার অতীত নিয়ে কোনো ধরনের কথা বলতে পারবে না। কেউ বলতে পারবে না আমার অতীতের জন্য আমি এই ছবিতে কাজ পেয়েছি,কিংবা এই ছবিতে শুধুই গ্ল্যামার বাড়িয়েছি।’

যদিও সব সমালোচনা-কটূক্তি হজম করে এগিয়ে যাওয়ার নামই হচ্ছে জীবন, তা উপলব্ধি করেছেন সানি। কিন্তু নায়িকার কথায়, ‘এই কথাগুলো আমাকে কষ্ট দেয়, প্রভাবিত করে কিন্তু এন্টারটেনার হিসাবে সেই আবেগ আমি বাইরে আনতে পারি না’। কেনেডি’ ছবিতে অনিদ্রা রোগে ভোগা এক প্রাক্তন পুলিশ অফিসারের গল্প উঠে এসেছে। দুনিয়ার চোখে বহুদিন আগেই মৃত তিনি, তবে দুর্নীতিগ্রস্ত সমাজ ব্যবস্থার বিরুদ্ধে অগোচরেই লড়াই চালাচ্ছেন তিনি। সানি ছাড়াও ছবিতে অভিনয় করেছেন রাহুল ভাট।

সূত্র:হিন্দুস্তান টাইমস।