ঢাকা ১০:০৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাকশীতে প্রধানমন্ত্রীর স্মার্ট রেলওয়ে বিনির্মাণ কাজে বাধাসৃষ্টির অভিযোগ 

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৫৮:৩১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ জুন ২০২৪ ৩৭ বার পড়া হয়েছে
প্রধানমন্ত্রীর স্মার্ট বাংলাদেশ ও স্মার্ট রেলওয়েকে চলমান স্মার্ট রেলওয়েতে উন্নীত করণ সহ বিনির্মান কাজে বাধা সৃষ্টি করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে..!
ঈশ্বরদী প্রতিনিধি।।
পাবনা পাকশী এলাকার তৃতীয় শ্রেণীর এক আওয়ামীলীগ নেতার নানা প্রকার অশুভ ও অনৈতিক চাপে রেলওয়ে পাকশী বিভাগীয় অফিসের একাধিক দপ্তরে দায়িত্বরত কর্মকর্তা কর্ম চারিরা অতীষ্ঠ হয়ে উঠেছেন। সাম্প্রতিক সময়ে ঐ নেতা বিভিন্ন কর্মকর্তার ওপর অনৈতিক চাপ প্রয়োগের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর স্মার্ট বাংলাদেশ ও স্মার্ট রেলওয়েকে চলমান স্মার্ট রেলওয়েতে উন্নীত করণ কাজে বিঘ্ন সৃষ্টি করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। পাকশী রেলওয়ের একাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারি ও এলাকাবাসীদের দেওয়া অভিযোগ সূত্রে এসব তথ্য জানাগেছে।
সূত্রমতে, সাবেক ভ’মিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ যখন ঈশ্বরদী  ও পাকশীর উন্নয়ন নিয়ে কাজ করছিলেন। ঠিক তখনই ঐ নেতা কয়েকজনকে সাথে নিয়ে অশুভ শক্তি বলে রেলওয়ে পাকশী বিভাগীয় অফিস,অফিসার্স কলোনী ও পদ্মানদীর গাইডবাধ এলাকাস্থ রেলওয়ের প্রায় এক’শ একর জমি দখল করে। পরে ঐ জমিতে প্লট করে বহিরাগতদের নিকট বিক্রি করে কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়। ফলে রেলওয়ের জমিতে প্রায় সাতশ বাড়ি নির্মাণ করায় গোটা পাকশী বিভাগীয় অফিস ও রেলওয়ের সাথে সমৃক্ত সকলকেই নানা সংসয়ের মধ্যে দিন কাটাতে হয়। শুধুকি তাই ? সে সময় ঐ নেতা যেমন সুকৌশলে প্রধানমন্ত্রী ও সাবেক ভূমিমন্ত্রীর ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছে টেন্ডারবাজীসহ নানা কর্মকান্ডের মাধ্যমে। বর্তমানেও প্রধান মন্ত্রীর টেন্ডারবাজী বন্ধে চালু করা ইজিপি সিষ্টেমকেও বাধাগ্রস্থ করতে এবং প্রধানমন্ত্রী মনোনীত ও জনগনের ভোটে নির্বাচিত পাবনা-৪ আসনের ক্লিনইমেজের তরুণ নেতা গালিবুর রহমান শরীফ এমপিরও ভাবমূর্তি নষ্ঠ করতে তৎপর রয়েছে। তার নানা কর্মকান্ডের কারণে রেলওয়ের প্রায় তিন’শ ঠিকাদার, বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, কর্মচারি ও এলাকাবাসী অতীষ্ঠ অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

পাকশীতে প্রধানমন্ত্রীর স্মার্ট রেলওয়ে বিনির্মাণ কাজে বাধাসৃষ্টির অভিযোগ 

আপডেট সময় : ০২:৫৮:৩১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ জুন ২০২৪
প্রধানমন্ত্রীর স্মার্ট বাংলাদেশ ও স্মার্ট রেলওয়েকে চলমান স্মার্ট রেলওয়েতে উন্নীত করণ সহ বিনির্মান কাজে বাধা সৃষ্টি করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে..!
ঈশ্বরদী প্রতিনিধি।।
পাবনা পাকশী এলাকার তৃতীয় শ্রেণীর এক আওয়ামীলীগ নেতার নানা প্রকার অশুভ ও অনৈতিক চাপে রেলওয়ে পাকশী বিভাগীয় অফিসের একাধিক দপ্তরে দায়িত্বরত কর্মকর্তা কর্ম চারিরা অতীষ্ঠ হয়ে উঠেছেন। সাম্প্রতিক সময়ে ঐ নেতা বিভিন্ন কর্মকর্তার ওপর অনৈতিক চাপ প্রয়োগের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর স্মার্ট বাংলাদেশ ও স্মার্ট রেলওয়েকে চলমান স্মার্ট রেলওয়েতে উন্নীত করণ কাজে বিঘ্ন সৃষ্টি করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। পাকশী রেলওয়ের একাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারি ও এলাকাবাসীদের দেওয়া অভিযোগ সূত্রে এসব তথ্য জানাগেছে।
সূত্রমতে, সাবেক ভ’মিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ যখন ঈশ্বরদী  ও পাকশীর উন্নয়ন নিয়ে কাজ করছিলেন। ঠিক তখনই ঐ নেতা কয়েকজনকে সাথে নিয়ে অশুভ শক্তি বলে রেলওয়ে পাকশী বিভাগীয় অফিস,অফিসার্স কলোনী ও পদ্মানদীর গাইডবাধ এলাকাস্থ রেলওয়ের প্রায় এক’শ একর জমি দখল করে। পরে ঐ জমিতে প্লট করে বহিরাগতদের নিকট বিক্রি করে কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়। ফলে রেলওয়ের জমিতে প্রায় সাতশ বাড়ি নির্মাণ করায় গোটা পাকশী বিভাগীয় অফিস ও রেলওয়ের সাথে সমৃক্ত সকলকেই নানা সংসয়ের মধ্যে দিন কাটাতে হয়। শুধুকি তাই ? সে সময় ঐ নেতা যেমন সুকৌশলে প্রধানমন্ত্রী ও সাবেক ভূমিমন্ত্রীর ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছে টেন্ডারবাজীসহ নানা কর্মকান্ডের মাধ্যমে। বর্তমানেও প্রধান মন্ত্রীর টেন্ডারবাজী বন্ধে চালু করা ইজিপি সিষ্টেমকেও বাধাগ্রস্থ করতে এবং প্রধানমন্ত্রী মনোনীত ও জনগনের ভোটে নির্বাচিত পাবনা-৪ আসনের ক্লিনইমেজের তরুণ নেতা গালিবুর রহমান শরীফ এমপিরও ভাবমূর্তি নষ্ঠ করতে তৎপর রয়েছে। তার নানা কর্মকান্ডের কারণে রেলওয়ের প্রায় তিন’শ ঠিকাদার, বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, কর্মচারি ও এলাকাবাসী অতীষ্ঠ অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন।