ঢাকা ১২:০৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অবশেষে নিজ দেশে নোঙর করলো এমভি আবদুল্লাহ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:৪২:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ মে ২০২৪ ১৬ বার পড়া হয়েছে

ছবি: সংগৃহিত

 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট।।

দেশের সীমানা পেরিয়ে সোমালিয়ান জলদস্যুদের হাত থেকে মুক্ত হয়ে ২৩ নাবিকসহ কবির গ্রুপের জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ বঙ্গোপসাগরের কুতুবদিয়ায় নোঙর করেছে।দীর্ঘ প্রায় এক মাস জিম্মিদশা থেকে মুক্তির পর দেশের মাটিতে ফিরে আসে।

সোমবার (১৩ মে) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে জাহাজটি নোঙর করে। মঙ্গলবার (১৪ মে) চট্টগ্রামের সদরঘাটে কেএসআরএমের জেটিতে বরণ করা হয় সকল নাবিকদের।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কেএসআরএম গ্রুপের মিডিয়া উপদেষ্টা মিজানুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এমভি আবদুল্লাহ বর্তমানে চট্রগ্রামের কুতুবদিয়ায় নোঙর করেছে।সোমালিয়ান জলদস্যুদের কবল থেকে মুক্ত নাবিকদের লাইটার জাহাজে করে মঙ্গলবার সরাসরি সদরঘাট কেএসআরএম জেটিতে নিয়ে আসা হয়। সেখানেই তাদেরকে বরণ করা হয়।’

সূত্রে জানা গেছে, এমভি আব্দুল্লাহ জাহাজটি সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে আমদানি করা ৫৬ হাজার টন চুনাপাথর নিয়ে এসেছে। কার্গোতে থাকা কিছু অংশ কুতুবদিয়ায় খালাস করা হবে এবং বাকি পণ্য খালাসের জন্য জাহাজটি চট্টগ্রাম বন্দরের বহিঃর্নোঙরে আসবে বলে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে , গত ১২ মার্চ ভারত মহাসাগর থেকে কেএসআরএম গ্রুপের এই জাহাজটি ছিনতাই করেছিল সোমালিয়ার দস্যুরা।এরপর মুক্তিপণ দিয়ে ৩৩ দিনের মাথায় ১৩ এপ্রিল দিবাগত রাতে জাহাজটি জলদস্যুদের হাত থেকে মুক্ত হয়। এরপর জাহাজটি প্রথমে আমিরাতের আল-হামরিয়া বন্দরে পৌঁছায়। সেখানে পণ্য খালাস শেষে আরেকটি বন্দর থেকে চুনাপাথর বোঝাই করে চট্টগ্রামের পথে রওনা হয়েছিল জাহাজটি। এ হিসেবে ১৩ দিনের মাথায় জাহাজটি বাংলাদেশের জলসীমায় এসে পৌঁছায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

অবশেষে নিজ দেশে নোঙর করলো এমভি আবদুল্লাহ

আপডেট সময় : ০৭:৪২:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ মে ২০২৪

ছবি: সংগৃহিত

 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট।।

দেশের সীমানা পেরিয়ে সোমালিয়ান জলদস্যুদের হাত থেকে মুক্ত হয়ে ২৩ নাবিকসহ কবির গ্রুপের জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ বঙ্গোপসাগরের কুতুবদিয়ায় নোঙর করেছে।দীর্ঘ প্রায় এক মাস জিম্মিদশা থেকে মুক্তির পর দেশের মাটিতে ফিরে আসে।

সোমবার (১৩ মে) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে জাহাজটি নোঙর করে। মঙ্গলবার (১৪ মে) চট্টগ্রামের সদরঘাটে কেএসআরএমের জেটিতে বরণ করা হয় সকল নাবিকদের।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কেএসআরএম গ্রুপের মিডিয়া উপদেষ্টা মিজানুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এমভি আবদুল্লাহ বর্তমানে চট্রগ্রামের কুতুবদিয়ায় নোঙর করেছে।সোমালিয়ান জলদস্যুদের কবল থেকে মুক্ত নাবিকদের লাইটার জাহাজে করে মঙ্গলবার সরাসরি সদরঘাট কেএসআরএম জেটিতে নিয়ে আসা হয়। সেখানেই তাদেরকে বরণ করা হয়।’

সূত্রে জানা গেছে, এমভি আব্দুল্লাহ জাহাজটি সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে আমদানি করা ৫৬ হাজার টন চুনাপাথর নিয়ে এসেছে। কার্গোতে থাকা কিছু অংশ কুতুবদিয়ায় খালাস করা হবে এবং বাকি পণ্য খালাসের জন্য জাহাজটি চট্টগ্রাম বন্দরের বহিঃর্নোঙরে আসবে বলে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে , গত ১২ মার্চ ভারত মহাসাগর থেকে কেএসআরএম গ্রুপের এই জাহাজটি ছিনতাই করেছিল সোমালিয়ার দস্যুরা।এরপর মুক্তিপণ দিয়ে ৩৩ দিনের মাথায় ১৩ এপ্রিল দিবাগত রাতে জাহাজটি জলদস্যুদের হাত থেকে মুক্ত হয়। এরপর জাহাজটি প্রথমে আমিরাতের আল-হামরিয়া বন্দরে পৌঁছায়। সেখানে পণ্য খালাস শেষে আরেকটি বন্দর থেকে চুনাপাথর বোঝাই করে চট্টগ্রামের পথে রওনা হয়েছিল জাহাজটি। এ হিসেবে ১৩ দিনের মাথায় জাহাজটি বাংলাদেশের জলসীমায় এসে পৌঁছায়।