ঢাকা ০১:৫০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কানায় কানায় পূর্ণ স্কুল মাঠ ছাড়িয়ে ১০কিমি জুড়ে জনতার ঢল,স্লোগানে উত্তাল রংপুর 

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:০৬:২৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২ অগাস্ট ২০২৩ ৭৭ বার পড়া হয়েছে

রংপুর প্রতিনিধি।।

রংপুর বিভাগীয় জনসভার আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়েছে।জিলা স্কুল মাঠে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মহাসমাবেশ বুধবার (২ আগস্ট) দুপুর ১২টা ১২ মিনিটে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শুরু হয়। এরপর পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত, গীতা ও ত্রিপিটক পাঠ করার মধ্য দিয়ে সভার আনুষ্ঠানিকতা শুরু করা হয়।

রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ডা. দেলোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে মহাসমাবেশ রংপুর জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন জেলার নেতারা বক্তব্য রাখবেন।

প্রধানমন্ত্রী দুপুর ৩টা ১০ মিনিটে সভাস্থলে এসে উপস্থিত হয়।

এদিকে, সকাল থেকে রংপুর নগরীসহ বিভাগের আট জেলা ও ৫৮টি উপজেলার গ্রাম পর্যায় থেকে নেতাকর্মীরা আসছেন। দুপুর ১টার আগেই সভাস্থল জিলা স্কুল মাঠ ছাড়িয়ে নগরীর ১০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে জনসমুদ্রে রূপ নিয়েছে। মুহুর্মুহু স্লোগানে উত্তাল হয়ে উঠেছে পুরো রংপুর। এখনও মিছিল নিয়ে আসছেন নেতাকর্মীরা। সভায় ১০ লাখেরও বেশি মানুষের সমাগম হবে।
মহাসমাবেশে রংপুর থেকেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচনি প্রচারণা আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু করেবেন। এই মহাসমাবেশে গুরুত্বপূর্ণ ভাষণ দিবেন শেখ হাসিনা।

জনসভায় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন ও সুজিত রায় নন্দী প্রমুখ।

সরেজমিনে দেখা যায়, রংপুর জিলা স্কুল মাঠ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে ভরে গেছে। ইতোমধ্যে মাঠ ছাড়িয়ে প্রধান সড়কের দুই দিকে অবস্থান নিয়েছেন নেতাকর্মীরা।
স্থানীয় নেতারা জানান, রংপুর বিভাগের ৫৮ উপজেলা থেকে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের আগমনে শহরজুড়ে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। বুধবার দুপুর ১২টার আগেই জনসভাস্থলসহ নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে উঠেছে।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সর্বশেষ রংপুরে এসেছিলেন ২০১৮ সালের ২৩ ডিসেম্বর। এ সময় তিনি রংপুরের পীরগঞ্জ ও তারাগঞ্জে দুটি নির্বাচনী জনসভা করেন। সাড়ে চার বছরের বেশি সময় পর তিনি আবার রংপুরে আসছেন। এর আগে ২০১১ সালের ৮ জানুয়ারি রংপুর জিলা স্কুল মাঠে মহাজোটের জনসভায় উন্নয়নের দায়িত্ব কাঁধে নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

কানায় কানায় পূর্ণ স্কুল মাঠ ছাড়িয়ে ১০কিমি জুড়ে জনতার ঢল,স্লোগানে উত্তাল রংপুর 

আপডেট সময় : ০৭:০৬:২৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২ অগাস্ট ২০২৩

রংপুর প্রতিনিধি।।

রংপুর বিভাগীয় জনসভার আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়েছে।জিলা স্কুল মাঠে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মহাসমাবেশ বুধবার (২ আগস্ট) দুপুর ১২টা ১২ মিনিটে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শুরু হয়। এরপর পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত, গীতা ও ত্রিপিটক পাঠ করার মধ্য দিয়ে সভার আনুষ্ঠানিকতা শুরু করা হয়।

রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ডা. দেলোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে মহাসমাবেশ রংপুর জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন জেলার নেতারা বক্তব্য রাখবেন।

প্রধানমন্ত্রী দুপুর ৩টা ১০ মিনিটে সভাস্থলে এসে উপস্থিত হয়।

এদিকে, সকাল থেকে রংপুর নগরীসহ বিভাগের আট জেলা ও ৫৮টি উপজেলার গ্রাম পর্যায় থেকে নেতাকর্মীরা আসছেন। দুপুর ১টার আগেই সভাস্থল জিলা স্কুল মাঠ ছাড়িয়ে নগরীর ১০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে জনসমুদ্রে রূপ নিয়েছে। মুহুর্মুহু স্লোগানে উত্তাল হয়ে উঠেছে পুরো রংপুর। এখনও মিছিল নিয়ে আসছেন নেতাকর্মীরা। সভায় ১০ লাখেরও বেশি মানুষের সমাগম হবে।
মহাসমাবেশে রংপুর থেকেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচনি প্রচারণা আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু করেবেন। এই মহাসমাবেশে গুরুত্বপূর্ণ ভাষণ দিবেন শেখ হাসিনা।

জনসভায় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন ও সুজিত রায় নন্দী প্রমুখ।

সরেজমিনে দেখা যায়, রংপুর জিলা স্কুল মাঠ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে ভরে গেছে। ইতোমধ্যে মাঠ ছাড়িয়ে প্রধান সড়কের দুই দিকে অবস্থান নিয়েছেন নেতাকর্মীরা।
স্থানীয় নেতারা জানান, রংপুর বিভাগের ৫৮ উপজেলা থেকে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের আগমনে শহরজুড়ে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। বুধবার দুপুর ১২টার আগেই জনসভাস্থলসহ নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে উঠেছে।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সর্বশেষ রংপুরে এসেছিলেন ২০১৮ সালের ২৩ ডিসেম্বর। এ সময় তিনি রংপুরের পীরগঞ্জ ও তারাগঞ্জে দুটি নির্বাচনী জনসভা করেন। সাড়ে চার বছরের বেশি সময় পর তিনি আবার রংপুরে আসছেন। এর আগে ২০১১ সালের ৮ জানুয়ারি রংপুর জিলা স্কুল মাঠে মহাজোটের জনসভায় উন্নয়নের দায়িত্ব কাঁধে নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী।