ঢাকা ০২:২৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফরিদপুরে আ.লীগ কর্মীর উপর বর্বরোচিত হামলা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:১৬:০৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২ অগাস্ট ২০২৩ ৬২ বার পড়া হয়েছে

ফরিদপুর সংবাদদাতা।।

 

ফরিদপুরের মধুখালি উপজেলার বাগাট ইউনিয়নের গোমারা স্বরূপপুর গ্রামের আ.লীগ কর্মী মো. শহিদুল শেখ (৫০) এর উপর গত ১৪ জুলাই সন্ধ্যায় স্থানীয় একটি ইটভাটার মালিক মিটুল শেখ গং এর নেতৃত্বে বর্ববরোচিত হামলা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আবারও হামলার আশংকা করছেন বাদী পক্ষ।

মামলা সূত্র ও স্থানীয় গ্রামবাসীরা জানান, এই গ্রামে একটি অবৈধ ইটের ভাটা লাইসেন্স ছাড়াই চলে আসছে এবং পরিবেশ এবং কৃষি কাজের মারাত্মক ক্ষতি হয়ে আসছে। এ ঘটনায় গ্রামবাসী ফরিদপুর পরিবেশ অধিদপ্তরে অভিযোগ করলে এমএমবিকে ইটভাটা মালিক ক্ষুব্ধ হয়ে জোটবদ্ধ হয়ে পরিকল্পিত ভাবে শহিদুল কে হত্যার চেষ্টা চালায়। রক্তাক্ত আহত শহিদুল কে স্থানীয়রা উদ্ধার করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। বর্তমান শহিদুল মৃত্যুর সাথে লড়াই করছে। এই ঘটনায় মধুখালী থানায় একটি মামলা হয়েছে। মামলা নম্বর ২১,তাং ২০/৭/২৩। শহিদুল স্থানীয় আওয়ামী লীগ এর একজন সমর্থক বলে জানা গেছে। হামলাকারীরা প্রভাবশালী ও বিএনপির স্থানীয় নেতা বলে জানা যায়।
এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত কোন আসামি আটক হয়নি বলে জানা গেছে। পরিবেশ অধিদপ্তর ফরিদপুর এর নিস্ক্রিয়তায় উক্ত গ্রামের অবৈধ এই ভাটার কারনে কৃষি কাজের ব্যাপক ক্ষতি হয়ে আসছে বলে অভিযোগ রয়েছে গ্রামে। আবারও যে কোন সময় হামলা হতে পারে বলে মামলার বাদী পক্ষ আশংকা করছেন এবং তাঁরা রয়েছেন বলে সূত্র জানিয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ফরিদপুরে আ.লীগ কর্মীর উপর বর্বরোচিত হামলা

আপডেট সময় : ০৬:১৬:০৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২ অগাস্ট ২০২৩

ফরিদপুর সংবাদদাতা।।

 

ফরিদপুরের মধুখালি উপজেলার বাগাট ইউনিয়নের গোমারা স্বরূপপুর গ্রামের আ.লীগ কর্মী মো. শহিদুল শেখ (৫০) এর উপর গত ১৪ জুলাই সন্ধ্যায় স্থানীয় একটি ইটভাটার মালিক মিটুল শেখ গং এর নেতৃত্বে বর্ববরোচিত হামলা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আবারও হামলার আশংকা করছেন বাদী পক্ষ।

মামলা সূত্র ও স্থানীয় গ্রামবাসীরা জানান, এই গ্রামে একটি অবৈধ ইটের ভাটা লাইসেন্স ছাড়াই চলে আসছে এবং পরিবেশ এবং কৃষি কাজের মারাত্মক ক্ষতি হয়ে আসছে। এ ঘটনায় গ্রামবাসী ফরিদপুর পরিবেশ অধিদপ্তরে অভিযোগ করলে এমএমবিকে ইটভাটা মালিক ক্ষুব্ধ হয়ে জোটবদ্ধ হয়ে পরিকল্পিত ভাবে শহিদুল কে হত্যার চেষ্টা চালায়। রক্তাক্ত আহত শহিদুল কে স্থানীয়রা উদ্ধার করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। বর্তমান শহিদুল মৃত্যুর সাথে লড়াই করছে। এই ঘটনায় মধুখালী থানায় একটি মামলা হয়েছে। মামলা নম্বর ২১,তাং ২০/৭/২৩। শহিদুল স্থানীয় আওয়ামী লীগ এর একজন সমর্থক বলে জানা গেছে। হামলাকারীরা প্রভাবশালী ও বিএনপির স্থানীয় নেতা বলে জানা যায়।
এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত কোন আসামি আটক হয়নি বলে জানা গেছে। পরিবেশ অধিদপ্তর ফরিদপুর এর নিস্ক্রিয়তায় উক্ত গ্রামের অবৈধ এই ভাটার কারনে কৃষি কাজের ব্যাপক ক্ষতি হয়ে আসছে বলে অভিযোগ রয়েছে গ্রামে। আবারও যে কোন সময় হামলা হতে পারে বলে মামলার বাদী পক্ষ আশংকা করছেন এবং তাঁরা রয়েছেন বলে সূত্র জানিয়েছে।