ঢাকা ১০:২৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

২ জুলাই থেকে হাজীদের দেশে ফেরা শুরু,জমজমের পানি পরিবহন নিষিদ্ধ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:১৭:৪৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ জুন ২০২৩ ৮৫ বার পড়া হয়েছে

সৌদি থেকে জমজমের পানি, উট, দুম্বার কাচা মাংস ফ্রোজেন করে আনা সম্পূর্ণ রুপে নিষিদ্ধ!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।

 

পশু কোরবানির মধ্যমে হাজীদের হজের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয়ে গেছে। এখন হাজিদের দেশে ফেরার পালা। বাংলাদেশি হাজীদের দেশে ফেরাতে ফ্লাইট শুরু হবে আগামী রবিবার (২ জুলাই) থেকে, এবং কার্যক্রম চলবে ২ আগস্ট পর্যন্ত।

এবার বাংলাদেশ থেকে ব্যবস্থাপনা সদস্যসহ ১,২২,৮৮৪ জন সৌদি আরবে গিয়েছেন হজ পালনের উদ্দেশ্যে।এর মধ্যে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স পরিবহন করেছে ১৫৯টি ফ্লাইটে ৬১,১৮০ জন হজযাত্রী।এছাড়াও সৌদি এয়ারলাইন্স পরিবহন করেছে ১১৩টি ফ্লাইটে ৪১,৪৬৮ জন হজযাত্রী। ফ্লাইনাস পরিবহন করেছে ৫৩টি ফ্লাইটে ২০, ২৩৬ জন হজযাত্রী।

সৌদি আরবে এ পর্যন্ত সর্বমোট ইন্তেকাল করেছেন ৪৩ হাজী। এদের মধ্যে পুরুষ ৩৫ জন এবং নারী হাজী ৮ জন।

এদিকে দেশে ফেরার সময় হজযাত্রীদের লাগেজে জমজমের পানি না আনার পরামর্শ দিয়েছে এয়ারলাইনগুলো। তারা জানিয়েছে, হজযাত্রীদের সৌদি পৌঁছানোর সময় ফিরতি ফ্লাইট খালি থাকায় বিমানে জমজমের পানি নিয়ে আসা হয়েছে। বর্তমানে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সকল হাজীদের জন্য জমজমের পানি মজুত রয়েছে। হাজীরা বাংলাদেশে আসলেই তাদের প্রত্যেকে পাঁচ লিটারের জমজমের পানির একটি বক্স পাবেন। ঢাকা ছাড়াও চট্টগ্রাম অথবা সিলেটে বিমানবন্দরেও একই রকমভাবে জমজমের পানি পাবেন হাজীরা।

এয়ারলাইনগুলো জানিয়েছে, সৌদি সরকার প্রত্যেক হাজীর জন্য ৫ লিটারের জমজমের পানি নির্ধারণ করে দিয়েছেন। তার চেয়ে বেশি আনার কেনো সুযোগ নেই। কোনও হাজী লাগেজে জমজমের পানি আনলে সেই লাগেজ সৌদিতেই থেকে যাবে বলে জানিয়েছেন। কিংবা সৌদি বিমানবন্দরে লাগেজ খুলে পানি পাওয়া গেলে ফেলে দেওয়ার পর তা বিমানে তুলতে দিবে। একই রকমভাবে অনেক হাজী সৌদি থেকে উট, দুম্বার কাচা মাংস ফ্রোজেন করে আনার চেষ্টা করেন। এটিও সম্পূর্ণ রুপে নিষিদ্ধ করা হয়েছে ।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

২ জুলাই থেকে হাজীদের দেশে ফেরা শুরু,জমজমের পানি পরিবহন নিষিদ্ধ

আপডেট সময় : ১২:১৭:৪৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ জুন ২০২৩

সৌদি থেকে জমজমের পানি, উট, দুম্বার কাচা মাংস ফ্রোজেন করে আনা সম্পূর্ণ রুপে নিষিদ্ধ!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।

 

পশু কোরবানির মধ্যমে হাজীদের হজের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয়ে গেছে। এখন হাজিদের দেশে ফেরার পালা। বাংলাদেশি হাজীদের দেশে ফেরাতে ফ্লাইট শুরু হবে আগামী রবিবার (২ জুলাই) থেকে, এবং কার্যক্রম চলবে ২ আগস্ট পর্যন্ত।

এবার বাংলাদেশ থেকে ব্যবস্থাপনা সদস্যসহ ১,২২,৮৮৪ জন সৌদি আরবে গিয়েছেন হজ পালনের উদ্দেশ্যে।এর মধ্যে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স পরিবহন করেছে ১৫৯টি ফ্লাইটে ৬১,১৮০ জন হজযাত্রী।এছাড়াও সৌদি এয়ারলাইন্স পরিবহন করেছে ১১৩টি ফ্লাইটে ৪১,৪৬৮ জন হজযাত্রী। ফ্লাইনাস পরিবহন করেছে ৫৩টি ফ্লাইটে ২০, ২৩৬ জন হজযাত্রী।

সৌদি আরবে এ পর্যন্ত সর্বমোট ইন্তেকাল করেছেন ৪৩ হাজী। এদের মধ্যে পুরুষ ৩৫ জন এবং নারী হাজী ৮ জন।

এদিকে দেশে ফেরার সময় হজযাত্রীদের লাগেজে জমজমের পানি না আনার পরামর্শ দিয়েছে এয়ারলাইনগুলো। তারা জানিয়েছে, হজযাত্রীদের সৌদি পৌঁছানোর সময় ফিরতি ফ্লাইট খালি থাকায় বিমানে জমজমের পানি নিয়ে আসা হয়েছে। বর্তমানে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সকল হাজীদের জন্য জমজমের পানি মজুত রয়েছে। হাজীরা বাংলাদেশে আসলেই তাদের প্রত্যেকে পাঁচ লিটারের জমজমের পানির একটি বক্স পাবেন। ঢাকা ছাড়াও চট্টগ্রাম অথবা সিলেটে বিমানবন্দরেও একই রকমভাবে জমজমের পানি পাবেন হাজীরা।

এয়ারলাইনগুলো জানিয়েছে, সৌদি সরকার প্রত্যেক হাজীর জন্য ৫ লিটারের জমজমের পানি নির্ধারণ করে দিয়েছেন। তার চেয়ে বেশি আনার কেনো সুযোগ নেই। কোনও হাজী লাগেজে জমজমের পানি আনলে সেই লাগেজ সৌদিতেই থেকে যাবে বলে জানিয়েছেন। কিংবা সৌদি বিমানবন্দরে লাগেজ খুলে পানি পাওয়া গেলে ফেলে দেওয়ার পর তা বিমানে তুলতে দিবে। একই রকমভাবে অনেক হাজী সৌদি থেকে উট, দুম্বার কাচা মাংস ফ্রোজেন করে আনার চেষ্টা করেন। এটিও সম্পূর্ণ রুপে নিষিদ্ধ করা হয়েছে ।