ঢাকা ১০:২৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সেন্ট্রাল হাসপাতালে সকল ধরনের অস্ত্রোপাচার বন্ধ: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:৫৮:২৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৬ জুন ২০২৩ ৬৮ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক।।

রাজধানী ঢাকার প্রানকেন্দ্র ধানমন্ডির সেন্ট্রাল হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারের সকল ধরনের কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।ওই এক নবজাতকের মৃত্যুর ঘটনায় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (হাসপাতাল ও ক্লিনিকসমুহ) ডা. শেখ দাউদ আদনান শুক্রবার এ তথ্য নিশ্চিত জানান। সেই সাথে হাসপাতালের গাইনি ও প্রসূতি বিভাগের চিকিৎসক অধ্যাপক সংযুক্তা সাহা ওই হাসপাতালে আপাতত কোনো বিশেষজ্ঞ সেবা প্রদান করতে পারবেন না।

তিনি জানান, মাহবুবা রহমান আঁখির চিকিৎসাজনিত অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একটি পরিদর্শন দল ওই হাসপাতাল পরিদর্শন করে ওটি করার উপযুক্ত পরিবেশ না থাকায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ওই হাসপাতালের ওটি বন্ধ থাকবে।

গত ১৪ জুন সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভুল চিকিৎসা ও কর্তৃপক্ষের প্রতারণায় মাহবুবা রহমান আঁখি নামে এক প্রসূতি মৃত্যুঝুঁকিতে পড়েছেন বলে অভিযোগ করেন তার স্বামী ইয়াকুব আলী। তিনি দাবি করেন, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অবহেলায় মারা গেছেন তাদের নবজাতক সন্তানও।

ওই ঘটনায় বুধবার ধানমন্ডি থানায় মোট ৬ জনের নাম উল্লেখসহ পাঁচ ৫/৬ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে ‘অবহেলাজনিত মৃত্যুর’ অভিযোগ এনে একটি মামলা দায়ের করেন ওই প্রসূতি নারীর স্বামী। সেই মামলায় ডা. শাহজাদী ও ডা. মুনাকে গ্রেফতার করে পুলিশ জেল হাজতে পাঠায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

সেন্ট্রাল হাসপাতালে সকল ধরনের অস্ত্রোপাচার বন্ধ: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

আপডেট সময় : ০৬:৫৮:২৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৬ জুন ২০২৩

অনলাইন ডেস্ক।।

রাজধানী ঢাকার প্রানকেন্দ্র ধানমন্ডির সেন্ট্রাল হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারের সকল ধরনের কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।ওই এক নবজাতকের মৃত্যুর ঘটনায় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (হাসপাতাল ও ক্লিনিকসমুহ) ডা. শেখ দাউদ আদনান শুক্রবার এ তথ্য নিশ্চিত জানান। সেই সাথে হাসপাতালের গাইনি ও প্রসূতি বিভাগের চিকিৎসক অধ্যাপক সংযুক্তা সাহা ওই হাসপাতালে আপাতত কোনো বিশেষজ্ঞ সেবা প্রদান করতে পারবেন না।

তিনি জানান, মাহবুবা রহমান আঁখির চিকিৎসাজনিত অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একটি পরিদর্শন দল ওই হাসপাতাল পরিদর্শন করে ওটি করার উপযুক্ত পরিবেশ না থাকায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ওই হাসপাতালের ওটি বন্ধ থাকবে।

গত ১৪ জুন সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভুল চিকিৎসা ও কর্তৃপক্ষের প্রতারণায় মাহবুবা রহমান আঁখি নামে এক প্রসূতি মৃত্যুঝুঁকিতে পড়েছেন বলে অভিযোগ করেন তার স্বামী ইয়াকুব আলী। তিনি দাবি করেন, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অবহেলায় মারা গেছেন তাদের নবজাতক সন্তানও।

ওই ঘটনায় বুধবার ধানমন্ডি থানায় মোট ৬ জনের নাম উল্লেখসহ পাঁচ ৫/৬ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে ‘অবহেলাজনিত মৃত্যুর’ অভিযোগ এনে একটি মামলা দায়ের করেন ওই প্রসূতি নারীর স্বামী। সেই মামলায় ডা. শাহজাদী ও ডা. মুনাকে গ্রেফতার করে পুলিশ জেল হাজতে পাঠায়।