ঢাকা ০৩:০৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন ভিসা নীতি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:৫৪:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ মে ২০২৩ ১১১ বার পড়া হয়েছে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।

বাংলাদেশে আসন্ন নির্বাচনে কোনো ধরনের অনিয়মের চেষ্টা করলে আমেরিকান ভিসা নিষেধাজ্ঞার হুমকি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় মঙ্গলবার(২৩ মে) দেশটির পররাষ্ট্র দপ্তরের নিয়মিত সংবাদ ব্রিফিংয়ে এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র মেথিউ মিলার এ সংবাদ ব্রিফিংটি করেন। তবে নতুন করে কোনো নিষেধাজ্ঞা দেয়নি দেশটি।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি জে ব্লিংকেন দেয়া এক টুইট বার্তায় উল্লেখ করেন, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন ব্যবস্থাকে এগিয়ে নিতে আজ আমি নতুন ভিসা নীতি ঘোষণা করছি। এ নীতির আওতায় বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক নির্বাচনী ব্যবস্থাকে যারা অবমূল্যায়ন করবে অথবা এর সাথে যারা জড়িত থাকবে বা যারা দায়ী হবে, তাদেরকে এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের ওপর আমরা ভিসা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে পারি।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের ওয়েব সাইটে ‘বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক নির্বাচন উৎসাহিত করতে ভিসা নীতির ঘোষণা’ শিরোনামে পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি জে ব্লিংকেনের একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়। এতে বলা হয়, বাংলাদেশের আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করার লক্ষ্যে সহায়তা করতে,আজ ইমিগ্রেশন অ্যান্ড ন্যাশনালিটি অ্যাক্টের ধারা ২১২(এ)(৩)(সি)(৩সি) এর অধীনে একটি নতুন ভিসা নীতি ঘোষণা করছি। এই নীতির অধীনে, যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক নির্বাচন প্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করার জন্য দায়ী বা জড়িত বলে মনে করা যে কোনো বাংলাদেশি ব্যক্তির জন্য ভিসা প্রদানে বিধিনিষেধ আরোপে সক্ষম হবে। এর মধ্যে বর্তমান ও প্রাক্তন বাংলাদেশি কর্মকর্তা ও কর্মচারী, সরকারপন্থী ও বিরোধী রাজনৈতিক দলের সদস্য এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থা, বিচার বিভাগ এবং নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র গত ৩ মে বাংলাদেশকে এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন ভিসা নীতি

আপডেট সময় : ০৬:৫৪:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ মে ২০২৩

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।

বাংলাদেশে আসন্ন নির্বাচনে কোনো ধরনের অনিয়মের চেষ্টা করলে আমেরিকান ভিসা নিষেধাজ্ঞার হুমকি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় মঙ্গলবার(২৩ মে) দেশটির পররাষ্ট্র দপ্তরের নিয়মিত সংবাদ ব্রিফিংয়ে এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র মেথিউ মিলার এ সংবাদ ব্রিফিংটি করেন। তবে নতুন করে কোনো নিষেধাজ্ঞা দেয়নি দেশটি।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি জে ব্লিংকেন দেয়া এক টুইট বার্তায় উল্লেখ করেন, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন ব্যবস্থাকে এগিয়ে নিতে আজ আমি নতুন ভিসা নীতি ঘোষণা করছি। এ নীতির আওতায় বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক নির্বাচনী ব্যবস্থাকে যারা অবমূল্যায়ন করবে অথবা এর সাথে যারা জড়িত থাকবে বা যারা দায়ী হবে, তাদেরকে এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের ওপর আমরা ভিসা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে পারি।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের ওয়েব সাইটে ‘বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক নির্বাচন উৎসাহিত করতে ভিসা নীতির ঘোষণা’ শিরোনামে পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি জে ব্লিংকেনের একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়। এতে বলা হয়, বাংলাদেশের আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করার লক্ষ্যে সহায়তা করতে,আজ ইমিগ্রেশন অ্যান্ড ন্যাশনালিটি অ্যাক্টের ধারা ২১২(এ)(৩)(সি)(৩সি) এর অধীনে একটি নতুন ভিসা নীতি ঘোষণা করছি। এই নীতির অধীনে, যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক নির্বাচন প্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করার জন্য দায়ী বা জড়িত বলে মনে করা যে কোনো বাংলাদেশি ব্যক্তির জন্য ভিসা প্রদানে বিধিনিষেধ আরোপে সক্ষম হবে। এর মধ্যে বর্তমান ও প্রাক্তন বাংলাদেশি কর্মকর্তা ও কর্মচারী, সরকারপন্থী ও বিরোধী রাজনৈতিক দলের সদস্য এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থা, বিচার বিভাগ এবং নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র গত ৩ মে বাংলাদেশকে এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে।