ঢাকা ০২:১৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফের পায়রায় বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:১৬:৫১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ জুন ২০২৩ ১০৬ বার পড়া হয়েছে

নিউজ ডেস্ক।।

 

কয়লা সঙ্কটে বন্ধ হয়ে যাওয়া দীর্ঘ বিশ দিন পর পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের একটি ইউনিটে উৎপাদন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ফলে বিদ্যুৎ সংকট কিছুটা কাটিয়ে লোডশেডিং কমার আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

রোববার (২৫ জুন) বিকাল ৪ টায় বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু হয়। এতে জাতীয় গ্রিডে ছয়শত মেগাওয়াট বিদ্যুৎ যুক্ত হয়েছে।

এ তথ্য জানিয়েছেন পায়রা তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রের ব্যবস্থাপনা পরিচালক খোরশের আলম।

গত বিশ দিন তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র বন্ধ থাকার সময়টাকে কাজে লাগিয়ে কেন্দ্র রক্ষণাবেক্ষণের কাজগুলো করে নেওয়া হয়েছে বলেও জানান এ কর্মকর্তা।

পায়রার অপর ইউনিটটি কবে চালু হবে, সে বিষয়ে এখনও নিশ্চিত কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

এর আগে কয়লার অভাবে গত ২৫ মে বন্ধ হয় পায়রার তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রথম ইউনিট। তীব্র দাবদাহ ও গরমে ঘণ্টায় ঘণ্টায় বিদ্যুতের যাওয়া আসার মধ্যে ৫ জুন বন্ধ হয় দ্বিতীয়টি। এরপর সারাদেশে ভয়াবহ লোডশেডিং দেখা যায়।

গত শুক্রবার ভোরে ‘এমভি অ্যাথেনা’ নামের জাহাজটি ৪১ হাজার মেট্রিক টন কয়লা নিয়ে পায়রা বন্দরের ইনারে ভিড়ে। তখন শিগ্রই তাপ বিদ্যুৎ উৎপাদনের আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়।

তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি পুরোদমে চালাতে প্রতিদিন ১২ হাজার টন কয়লার প্রয়োজন। সে হিসাবে শুক্রবার আসা জাহাজের কয়লা দিয়ে একটি ইউনিট সাত তিন চালু রাখতে পারবে।

বিদ্যুৎকেন্দ্রটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আরও ১৭টি জাহাজ কয়লা নিয়ে আসবে। ফলে এবারের মতো সঙ্কটের আশঙ্কা করছে না তারা। উৎপাদন সচল থাকলে লোডশেডিংও অনেককাংশে কম হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ফের পায়রায় বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু

আপডেট সময় : ১১:১৬:৫১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ জুন ২০২৩

নিউজ ডেস্ক।।

 

কয়লা সঙ্কটে বন্ধ হয়ে যাওয়া দীর্ঘ বিশ দিন পর পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের একটি ইউনিটে উৎপাদন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ফলে বিদ্যুৎ সংকট কিছুটা কাটিয়ে লোডশেডিং কমার আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

রোববার (২৫ জুন) বিকাল ৪ টায় বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু হয়। এতে জাতীয় গ্রিডে ছয়শত মেগাওয়াট বিদ্যুৎ যুক্ত হয়েছে।

এ তথ্য জানিয়েছেন পায়রা তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রের ব্যবস্থাপনা পরিচালক খোরশের আলম।

গত বিশ দিন তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র বন্ধ থাকার সময়টাকে কাজে লাগিয়ে কেন্দ্র রক্ষণাবেক্ষণের কাজগুলো করে নেওয়া হয়েছে বলেও জানান এ কর্মকর্তা।

পায়রার অপর ইউনিটটি কবে চালু হবে, সে বিষয়ে এখনও নিশ্চিত কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

এর আগে কয়লার অভাবে গত ২৫ মে বন্ধ হয় পায়রার তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রথম ইউনিট। তীব্র দাবদাহ ও গরমে ঘণ্টায় ঘণ্টায় বিদ্যুতের যাওয়া আসার মধ্যে ৫ জুন বন্ধ হয় দ্বিতীয়টি। এরপর সারাদেশে ভয়াবহ লোডশেডিং দেখা যায়।

গত শুক্রবার ভোরে ‘এমভি অ্যাথেনা’ নামের জাহাজটি ৪১ হাজার মেট্রিক টন কয়লা নিয়ে পায়রা বন্দরের ইনারে ভিড়ে। তখন শিগ্রই তাপ বিদ্যুৎ উৎপাদনের আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়।

তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি পুরোদমে চালাতে প্রতিদিন ১২ হাজার টন কয়লার প্রয়োজন। সে হিসাবে শুক্রবার আসা জাহাজের কয়লা দিয়ে একটি ইউনিট সাত তিন চালু রাখতে পারবে।

বিদ্যুৎকেন্দ্রটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আরও ১৭টি জাহাজ কয়লা নিয়ে আসবে। ফলে এবারের মতো সঙ্কটের আশঙ্কা করছে না তারা। উৎপাদন সচল থাকলে লোডশেডিংও অনেককাংশে কম হবে।