ঢাকা ০৪:২১ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মৌলভীবাজারে বন্যা পরিস্থিতি উন্নতির দিকে: ডিসি উর্মি বিনতে সালাম

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:২৩:৩৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২ জুন ২০২৪ ১৫ বার পড়া হয়েছে
তিমির বনিক, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি।।
মৌলভীবাজারে সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। বৃষ্টি না হওয়ায় নিম্নাঞ্চলে জলাবদ্ধতার পানি নামতে শুরু করেছে।
শুক্রবার (৩১ মে) দুপুর ১২টায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের রিডিং অনুযায়ী মনু নদরে শহর সংলগ্ন চাঁদনীঘাট পয়েন্টে বিপৎসীমার চার মিটার এবং কুলাউড়ার মনু রেলওয়ে ব্রিজ পয়েন্টে এক দশমিক ৪২ (চার-দুই) মিটার নীচ দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে।
এদিকে নদ-নদীর পানিও কমতে শুরু করেছে। মনু নদ, ধলাই নদ এবং কুশিয়ারা নদীসহ সবকটি নদীর পানি বিপৎসীমার নীচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।
এদিকে জেলা প্রশাসক ড. উর্মি বিনতে সালাম সহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা বন্যা পরিস্থিতির পরিদর্শন সহ খোঁজখবর নিচ্ছেন।
ধলাই নদের রেলওয়ে ব্রিজ পয়েন্টে বিপৎসীমার এক দশমিক ৭৭ (সাত-সাত) মিটার নীচ দিয়ে পানি প্রবাহিত
হচ্ছে। কুশিয়ারা নদীর রেলওয়ে ব্রিজ পয়েন্টে বিপৎসীমার দশমিক ৫৪ (পাঁচ-চার) মিটার নীচ দিয়ে পানি প্রবাহিত
হচ্ছে।
উল্লেখ্য, ঘূর্ণিঝড় রেমালের কারণে সৃষ্টি ভারী বৃষ্টিপাত এবং উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের পানি প্রবেশ করায় মৌলভীবাজারের মনু নদীতে পানি বৃদ্ধি পেয়ে কিছু এলাকায় প্রবেশ করে। কুলাউড়া, কমলগঞ্জ, জুড়ীতে কয়েকটি গ্রামের মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েন। তবে, দুইদিনের মাথায় নদীর পানি কমতে শুরু করেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

মৌলভীবাজারে বন্যা পরিস্থিতি উন্নতির দিকে: ডিসি উর্মি বিনতে সালাম

আপডেট সময় : ০৩:২৩:৩৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২ জুন ২০২৪
তিমির বনিক, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি।।
মৌলভীবাজারে সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। বৃষ্টি না হওয়ায় নিম্নাঞ্চলে জলাবদ্ধতার পানি নামতে শুরু করেছে।
শুক্রবার (৩১ মে) দুপুর ১২টায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের রিডিং অনুযায়ী মনু নদরে শহর সংলগ্ন চাঁদনীঘাট পয়েন্টে বিপৎসীমার চার মিটার এবং কুলাউড়ার মনু রেলওয়ে ব্রিজ পয়েন্টে এক দশমিক ৪২ (চার-দুই) মিটার নীচ দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে।
এদিকে নদ-নদীর পানিও কমতে শুরু করেছে। মনু নদ, ধলাই নদ এবং কুশিয়ারা নদীসহ সবকটি নদীর পানি বিপৎসীমার নীচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।
এদিকে জেলা প্রশাসক ড. উর্মি বিনতে সালাম সহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা বন্যা পরিস্থিতির পরিদর্শন সহ খোঁজখবর নিচ্ছেন।
ধলাই নদের রেলওয়ে ব্রিজ পয়েন্টে বিপৎসীমার এক দশমিক ৭৭ (সাত-সাত) মিটার নীচ দিয়ে পানি প্রবাহিত
হচ্ছে। কুশিয়ারা নদীর রেলওয়ে ব্রিজ পয়েন্টে বিপৎসীমার দশমিক ৫৪ (পাঁচ-চার) মিটার নীচ দিয়ে পানি প্রবাহিত
হচ্ছে।
উল্লেখ্য, ঘূর্ণিঝড় রেমালের কারণে সৃষ্টি ভারী বৃষ্টিপাত এবং উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের পানি প্রবেশ করায় মৌলভীবাজারের মনু নদীতে পানি বৃদ্ধি পেয়ে কিছু এলাকায় প্রবেশ করে। কুলাউড়া, কমলগঞ্জ, জুড়ীতে কয়েকটি গ্রামের মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েন। তবে, দুইদিনের মাথায় নদীর পানি কমতে শুরু করেছে।