ঢাকা ০৩:৩৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রূপগঞ্জে আলোচিত ডন সেলিমের বাড়িতে দফায় দফায় হামলা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৪৬:৩২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪ ৪২ বার পড়া হয়েছে

 

পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে অভিযোগ করবেন রাশিয়ান অ্যাম্বাসিতে.!

নয়া উপজেলা চেয়ারম্যানের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রানুর পক্ষে সমর্থন দেওয়ায়, এমপি গাজী সাহেবের ছেলে পাপ্পা গাজীর নির্দেশে বালু হাবিব ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে  এই হামলা চালিয়েছে- ডন সেলিম

 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট।।

 

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থীর পক্ষে সমর্থন দেওয়ায় জাপান-বাংলাদেশ গ্রুপের চেয়ারম্যান ডন খ্যাত আলোচিত সেলিম প্রধানের বাড়িতে কয়েক দফা হামলা ও গুলি চালানোর অভিযোগ উঠেছে।হামলায় কমপক্ষে ৬ নিরাপত্তাকর্মী আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন।

শুক্রবার (২৪ মে ) সকাল থেকে দফায় দফায় হামলা শুরু করে বিকাল পর্যন্ত একটু পর পর থেমে থেমে গুলি সহ হামলা চালায়।

রূপগঞ্জ উপজেলার সাওঘাট এলাকার  বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন নিরাপত্তাকর্মী আক্তার হোসেন, ফরহাদ হোসেন, শফিকুল ইসলাম, শিপন হাওলাদার, রানা শেখ ও ফারুক হোসেন।

এ প্রসঙ্গে সেলিম প্রধান দাবি করে বলেন, সকালে সন্ত্রাসী বালু হাবিবের (সদ্য নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হাবিব) নির্দেশে শতাধিক সন্ত্রাসী বাহিনী দেশি অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে বাড়ি ভাঙচুর করেছে। বাড়ির থাকা লোকজন এবং নিরাপত্তারক্ষীদের মারধর করেছে। তাদেরকে জানে মেরে ফেলার হুমকি দিয়েছে।এছাড়াও  তারা ঘোষণা দিয়ে আমাকে জানে মেরে ফেলার জন্য এই হামলা করেছে।

তিনি আরও দাবি করে, সদ্য অনুষ্ঠিত উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচনে বালু হাবিবের (হাবিবুর রহমান হাবিব) প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রানুর পক্ষে সমর্থন দেওয়ায় মূলত এ হামলা করা হয়েছে। এমপি গাজী সাহেবের ছেলে পাপ্পা গাজীর (গাজী গোলাম মর্তুজা পাপ্পা) নির্দেশে বালু হাবিব ও তার সন্ত্রাসী দিয়ে  এই হামলা চালিয়েছে।

সেলিম প্রধান আরও বলেন, আমার স্ত্রী ও সন্তানরা রাশিয়ান নাগরিক। আমি এই ঘটনাযর বিচার চেয়ে রাশিয়ান অ্যাম্বাসিতে অভিযোগ করবো। এ অবস্থায় স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। তাই আমি এই ঘটনায় থানায় অভিযোগ করবো।

জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সেলিম প্রধানের রাশিয়ান বংশদ্ভূত স্ত্রী আনা প্রধান বলেন, আমি ও আমার সন্তানরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এই ঘটনায় পুলিশ প্রশাসন ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে রাশিয়ান অ্যাম্বাসিতে নিরাপত্তা চেয়ে অভিযোগ করবো।

হামলা প্রসঙ্গে সেলিম প্রধান বলেন, আমাকে ও আমার পরিবারকে ওরা খুন করতেই দফায় দফায় হামলা চালিয়েছে। ৩০ রাউন্ডের অধিক গুলি ছুড়েছে। গুলির খোসা অনেক স্থানে পড়ে আছে। এই ঘটনার অনেক ভিডিও আমার কাছে আছে, যা প্রমাণ হিসেবে রেখে দিয়েছি।

হামলা বিষয়ে রূপগঞ্জের নব নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হাবিবের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

 

রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা বলেন,আমার জানা মতে একটি আড়তের ব্যবসাকে কেন্দ্র করে সকালে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এরপর থেকে পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।পরিস্থিতি স্বভাবিক রয়েছে।
বিকালে হামলার ঘটনা ও গুলি ছোড়ার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সেখানে পুলিশ সদস্য মোতায়েন রয়েছে। তারা বিষয়টি দেখছে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

রূপগঞ্জে আলোচিত ডন সেলিমের বাড়িতে দফায় দফায় হামলা

আপডেট সময় : ০১:৪৬:৩২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

 

পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে অভিযোগ করবেন রাশিয়ান অ্যাম্বাসিতে.!

নয়া উপজেলা চেয়ারম্যানের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রানুর পক্ষে সমর্থন দেওয়ায়, এমপি গাজী সাহেবের ছেলে পাপ্পা গাজীর নির্দেশে বালু হাবিব ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে  এই হামলা চালিয়েছে- ডন সেলিম

 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট।।

 

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থীর পক্ষে সমর্থন দেওয়ায় জাপান-বাংলাদেশ গ্রুপের চেয়ারম্যান ডন খ্যাত আলোচিত সেলিম প্রধানের বাড়িতে কয়েক দফা হামলা ও গুলি চালানোর অভিযোগ উঠেছে।হামলায় কমপক্ষে ৬ নিরাপত্তাকর্মী আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন।

শুক্রবার (২৪ মে ) সকাল থেকে দফায় দফায় হামলা শুরু করে বিকাল পর্যন্ত একটু পর পর থেমে থেমে গুলি সহ হামলা চালায়।

রূপগঞ্জ উপজেলার সাওঘাট এলাকার  বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন নিরাপত্তাকর্মী আক্তার হোসেন, ফরহাদ হোসেন, শফিকুল ইসলাম, শিপন হাওলাদার, রানা শেখ ও ফারুক হোসেন।

এ প্রসঙ্গে সেলিম প্রধান দাবি করে বলেন, সকালে সন্ত্রাসী বালু হাবিবের (সদ্য নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হাবিব) নির্দেশে শতাধিক সন্ত্রাসী বাহিনী দেশি অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে বাড়ি ভাঙচুর করেছে। বাড়ির থাকা লোকজন এবং নিরাপত্তারক্ষীদের মারধর করেছে। তাদেরকে জানে মেরে ফেলার হুমকি দিয়েছে।এছাড়াও  তারা ঘোষণা দিয়ে আমাকে জানে মেরে ফেলার জন্য এই হামলা করেছে।

তিনি আরও দাবি করে, সদ্য অনুষ্ঠিত উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচনে বালু হাবিবের (হাবিবুর রহমান হাবিব) প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রানুর পক্ষে সমর্থন দেওয়ায় মূলত এ হামলা করা হয়েছে। এমপি গাজী সাহেবের ছেলে পাপ্পা গাজীর (গাজী গোলাম মর্তুজা পাপ্পা) নির্দেশে বালু হাবিব ও তার সন্ত্রাসী দিয়ে  এই হামলা চালিয়েছে।

সেলিম প্রধান আরও বলেন, আমার স্ত্রী ও সন্তানরা রাশিয়ান নাগরিক। আমি এই ঘটনাযর বিচার চেয়ে রাশিয়ান অ্যাম্বাসিতে অভিযোগ করবো। এ অবস্থায় স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। তাই আমি এই ঘটনায় থানায় অভিযোগ করবো।

জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সেলিম প্রধানের রাশিয়ান বংশদ্ভূত স্ত্রী আনা প্রধান বলেন, আমি ও আমার সন্তানরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এই ঘটনায় পুলিশ প্রশাসন ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে রাশিয়ান অ্যাম্বাসিতে নিরাপত্তা চেয়ে অভিযোগ করবো।

হামলা প্রসঙ্গে সেলিম প্রধান বলেন, আমাকে ও আমার পরিবারকে ওরা খুন করতেই দফায় দফায় হামলা চালিয়েছে। ৩০ রাউন্ডের অধিক গুলি ছুড়েছে। গুলির খোসা অনেক স্থানে পড়ে আছে। এই ঘটনার অনেক ভিডিও আমার কাছে আছে, যা প্রমাণ হিসেবে রেখে দিয়েছি।

হামলা বিষয়ে রূপগঞ্জের নব নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হাবিবের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

 

রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা বলেন,আমার জানা মতে একটি আড়তের ব্যবসাকে কেন্দ্র করে সকালে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এরপর থেকে পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।পরিস্থিতি স্বভাবিক রয়েছে।
বিকালে হামলার ঘটনা ও গুলি ছোড়ার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সেখানে পুলিশ সদস্য মোতায়েন রয়েছে। তারা বিষয়টি দেখছে।