ঢাকা ০৯:৫৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

১৭ যানবাহন সহ যাত্রী নিয়ে পদ্মায় ডুবে গেছে ফেরি রজনীগন্ধা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:৪০:২৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২৪ ৫০০ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধি।।

দেশে চলমান শৈত্য প্রবাহ ও ঘন কুয়াশার কারণে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে আটকে পরা রজনীগন্ধা ফেরিটি ১৭টি যানবাহন নিয়ে পদ্মা  নদীতে ডুবে গেছে।

বুধবার (১৭ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে পদ্মা নদীতে আস্তে আস্তে ফেরিটি ডুবে যেতে থাকে।
স্থানীয়রা জানান, ডুবে যাওয়ার  সময় ফেরিতে থাকা যাত্রীদের আর্তচিৎকার শোনা গেছে।

পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস জানায়, ঘন কুয়াশার কারণে মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) দিনগত রাত ২টা থেকে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া, আরিচা-কাজীরহাট ও ধাওয়াপাড়া-নাজিরগঞ্জ নৌরুটে সাভাবিক ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। যা বুধবার সকালেও চালু হয়নি। এমতাবস্থায় পাটুরিরা ৫নং ঘাটের কাছাকাছি অবস্থানে থাকা ফেরিটি পদ্মা নদীতে ডুবে যায়।
এসময় ফেরিতে  ১৭টি যানবাহন ছিল বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় সকল যানবাহনের বহু যাত্রীও নদীতে ডুবে যায়। তাদের উদ্ধারে নৌ-পুলিশ, ফায়ার সার্ভিসের সঙ্গে কাজ শুরু করেছে স্থানীয় জনসাধারণ। এখন পর্যন্ত হতাহতের কোনো ধরনের খবর পাওয়া যায়নি।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

১৭ যানবাহন সহ যাত্রী নিয়ে পদ্মায় ডুবে গেছে ফেরি রজনীগন্ধা

আপডেট সময় : ০৪:৪০:২৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২৪

বিশেষ প্রতিনিধি।।

দেশে চলমান শৈত্য প্রবাহ ও ঘন কুয়াশার কারণে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে আটকে পরা রজনীগন্ধা ফেরিটি ১৭টি যানবাহন নিয়ে পদ্মা  নদীতে ডুবে গেছে।

বুধবার (১৭ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে পদ্মা নদীতে আস্তে আস্তে ফেরিটি ডুবে যেতে থাকে।
স্থানীয়রা জানান, ডুবে যাওয়ার  সময় ফেরিতে থাকা যাত্রীদের আর্তচিৎকার শোনা গেছে।

পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস জানায়, ঘন কুয়াশার কারণে মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) দিনগত রাত ২টা থেকে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া, আরিচা-কাজীরহাট ও ধাওয়াপাড়া-নাজিরগঞ্জ নৌরুটে সাভাবিক ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। যা বুধবার সকালেও চালু হয়নি। এমতাবস্থায় পাটুরিরা ৫নং ঘাটের কাছাকাছি অবস্থানে থাকা ফেরিটি পদ্মা নদীতে ডুবে যায়।
এসময় ফেরিতে  ১৭টি যানবাহন ছিল বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় সকল যানবাহনের বহু যাত্রীও নদীতে ডুবে যায়। তাদের উদ্ধারে নৌ-পুলিশ, ফায়ার সার্ভিসের সঙ্গে কাজ শুরু করেছে স্থানীয় জনসাধারণ। এখন পর্যন্ত হতাহতের কোনো ধরনের খবর পাওয়া যায়নি।