ঢাকা ১২:৩৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কিশোর গ্যাং সন্ত্রাসী সম্রাট-সিজার গ্রুপের তান্ডব, যুবককে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:৫৪:১২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৮ নভেম্বর ২০২৩ ৩৪২ বার পড়া হয়েছে
রহস্যজনক কারনে নির্বিকার বন্দর পুলিশ’ আসামী অধরা
বন্দর প্রতিনিধি।।
নারায়ণগঞ্জের বন্দরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কিশোর গ্যাং সন্ত্রাসী  হামলায় ইমন (২৩) নামে এক যুবক গুরুতর আহত হয়েছে। এ সময় ইমনকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার হন ইমনের ছোট ভাই রাকিব ও তার মা বিউটি আক্তার আহত হন।
গত ৩ নভেম্বর রাত আনুমানিক ১১.৩০ মিনিটের দিকে বন্দর উপজেলাধীন চৌধুরী বাড়ি হাবিবনগর এলাকায় চিহ্নিত কিশোর গ্যাং লিডার ও মাদক কারবারি সম্রাট (২০) ও সিজানের (১৯) নেতৃত্বে ১৫/২০ জনের কিশোর গ্যাং সন্ত্রাসী বাহিনী পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বন্দর চৌধুরী বাড়ি পাকা রাস্তা সংলগ্ন ইমনকে একা পেয়ে এলোপাথারি কিল ঘুষি মারা সহ ইমনকে হত্যার উদ্দেশ্যে রামদা দিয়ে মাথায় মারাত্মক ভাবে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে।
 এসময় স্থানীয় ও পরিবারের লোকজন  আহত ইমনকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করেন। পরবর্তীতে আহত ইমনের মা বাদী হয়ে উল্লেখিত সন্ত্রাসীদের নামে বন্দর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযোগ দায়ের সংবাদ জানতে পেরে উল্লেখিত সন্ত্রাসীরা পুনরায় ৪ নভেম্বর রাত ৯.৩০ মিনিটের দিকে ইমনের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর করে ব্যাপক ক্ষতিসাধন করে এবং এই বিষয়ে বেশি বাড়াবাড়ি করলে ইমনের পরিবারের সকলকে প্রাননাশ করবে বলে হুমকি প্রদান করে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে৷

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

কিশোর গ্যাং সন্ত্রাসী সম্রাট-সিজার গ্রুপের তান্ডব, যুবককে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

আপডেট সময় : ০৩:৫৪:১২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৮ নভেম্বর ২০২৩
রহস্যজনক কারনে নির্বিকার বন্দর পুলিশ’ আসামী অধরা
বন্দর প্রতিনিধি।।
নারায়ণগঞ্জের বন্দরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কিশোর গ্যাং সন্ত্রাসী  হামলায় ইমন (২৩) নামে এক যুবক গুরুতর আহত হয়েছে। এ সময় ইমনকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার হন ইমনের ছোট ভাই রাকিব ও তার মা বিউটি আক্তার আহত হন।
গত ৩ নভেম্বর রাত আনুমানিক ১১.৩০ মিনিটের দিকে বন্দর উপজেলাধীন চৌধুরী বাড়ি হাবিবনগর এলাকায় চিহ্নিত কিশোর গ্যাং লিডার ও মাদক কারবারি সম্রাট (২০) ও সিজানের (১৯) নেতৃত্বে ১৫/২০ জনের কিশোর গ্যাং সন্ত্রাসী বাহিনী পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বন্দর চৌধুরী বাড়ি পাকা রাস্তা সংলগ্ন ইমনকে একা পেয়ে এলোপাথারি কিল ঘুষি মারা সহ ইমনকে হত্যার উদ্দেশ্যে রামদা দিয়ে মাথায় মারাত্মক ভাবে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে।
 এসময় স্থানীয় ও পরিবারের লোকজন  আহত ইমনকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করেন। পরবর্তীতে আহত ইমনের মা বাদী হয়ে উল্লেখিত সন্ত্রাসীদের নামে বন্দর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযোগ দায়ের সংবাদ জানতে পেরে উল্লেখিত সন্ত্রাসীরা পুনরায় ৪ নভেম্বর রাত ৯.৩০ মিনিটের দিকে ইমনের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর করে ব্যাপক ক্ষতিসাধন করে এবং এই বিষয়ে বেশি বাড়াবাড়ি করলে ইমনের পরিবারের সকলকে প্রাননাশ করবে বলে হুমকি প্রদান করে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে৷