ঢাকা ০২:২১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্য থেকে রেহাই পায়নি সাংবাদিকরাও, বিচার হবে: তথ্যমন্ত্রী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:২৩:৩৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২৩ ৬০ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক।।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘বিএনপি-জামাতের নৈরাজ্য থেকে রেহাই পায়নি নিরীহ মানুষ,  পুলিশ, সাংবাদিকরাও।

নৈরাজ্যে ২০ জনের বেশি সাংবাদিক আহত হয়েছেন, দেড়শ’র বেশি পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে, একজন পুলিশ সদস্যকে প্রকাশ্যে নির্মমভাবে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে, সাধারণ মানুষের ওপরও নির্বিচারে হামলা হয়েছে। এই সব ভয়ংকর অপরাধীদের বিচার নিশ্চিত করা হবে।’

শনিবার (২৮ অক্টোবর) রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আওয়ামী লীগ প্রতিনিধি দলের সঙ্গে এ দিন ঢাকায় বিএনপির সমাবেশের নামে বিভিন্ন স্থানে হামলায় আহতদের খোঁজখবর নেওয়া ও চিকিৎসা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী হাসান মাহমুদ।

তিনি বলেন, ‘সমাবেশের নামে বিএনপি-জামায়াতের নৃশংস হামলায় আহত সাংবাদিক, পুলিশ সদস্য, দলীয় নেতাকর্মীসহ চিকিৎসাধীন সকলকে দেখতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সরকার ও দলের পক্ষ থেকে আমরা এখানে এসেছি। আমরা রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালেও যাবো।’

সাংবাদিকদের কি অপরাধ প্রশ্ন রেখে হাছান বলেন, ‘সাংবাদিকরা নিউজ কাভার করতে গেছে, পুলিশ তার ডিউটিতে ছিল, সাধারণ মানুষ তার কাজে যাচ্ছিল। এদের ওপর নৃশংস হামলা ক্ষেত্রবিশেষে বিএনপির ২০১৩, ১৪, ১৫ সালের বর্বরতাকেও হার মানিয়েছে। অপরাধীদের অবশ্যই বিচারের আওতায় আনা হবে।’

এ সময় আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, আফম বাহাউদ্দিন নাসিম এবং কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এসময় আওয়ামী লীগ নেতারা সকল আহতদের সেবায় তাদের পাশে থাকার কথা জানান। পরে প্রতিনিধি দলটি রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে আহতদের দেখতে যান ও তাদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্য থেকে রেহাই পায়নি সাংবাদিকরাও, বিচার হবে: তথ্যমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০৩:২৩:৩৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২৩

অনলাইন ডেস্ক।।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘বিএনপি-জামাতের নৈরাজ্য থেকে রেহাই পায়নি নিরীহ মানুষ,  পুলিশ, সাংবাদিকরাও।

নৈরাজ্যে ২০ জনের বেশি সাংবাদিক আহত হয়েছেন, দেড়শ’র বেশি পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে, একজন পুলিশ সদস্যকে প্রকাশ্যে নির্মমভাবে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে, সাধারণ মানুষের ওপরও নির্বিচারে হামলা হয়েছে। এই সব ভয়ংকর অপরাধীদের বিচার নিশ্চিত করা হবে।’

শনিবার (২৮ অক্টোবর) রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আওয়ামী লীগ প্রতিনিধি দলের সঙ্গে এ দিন ঢাকায় বিএনপির সমাবেশের নামে বিভিন্ন স্থানে হামলায় আহতদের খোঁজখবর নেওয়া ও চিকিৎসা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী হাসান মাহমুদ।

তিনি বলেন, ‘সমাবেশের নামে বিএনপি-জামায়াতের নৃশংস হামলায় আহত সাংবাদিক, পুলিশ সদস্য, দলীয় নেতাকর্মীসহ চিকিৎসাধীন সকলকে দেখতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সরকার ও দলের পক্ষ থেকে আমরা এখানে এসেছি। আমরা রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালেও যাবো।’

সাংবাদিকদের কি অপরাধ প্রশ্ন রেখে হাছান বলেন, ‘সাংবাদিকরা নিউজ কাভার করতে গেছে, পুলিশ তার ডিউটিতে ছিল, সাধারণ মানুষ তার কাজে যাচ্ছিল। এদের ওপর নৃশংস হামলা ক্ষেত্রবিশেষে বিএনপির ২০১৩, ১৪, ১৫ সালের বর্বরতাকেও হার মানিয়েছে। অপরাধীদের অবশ্যই বিচারের আওতায় আনা হবে।’

এ সময় আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, আফম বাহাউদ্দিন নাসিম এবং কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এসময় আওয়ামী লীগ নেতারা সকল আহতদের সেবায় তাদের পাশে থাকার কথা জানান। পরে প্রতিনিধি দলটি রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে আহতদের দেখতে যান ও তাদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন।