ঢাকা ০৯:২৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

১৫ আগস্টে জিয়া, ২১ আগস্টের পেছনে উত্তরশূরি তারেক: তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৮:২৪:০০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ অগাস্ট ২০২৩ ৮৮ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক।

 

 

তথ্যমন্ত্রী- সম্প্রচার ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঘটিয়েছিল জিয়াউর রহমান আর খালেদা জিয়ার জ্ঞাতসারে ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা ঘটিয়েছিল তারেক রহমান এবং আজকে বিএনপি মানুষ পোড়ানোর রাজনীতিতে মসগুল।

মঙ্গলবার (১৫ আগস্ট) জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সকালে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঘাতকের হাতে নিহত বঙ্গবন্ধুর পরিবারের সদস্যদের সমাধিতে দলীয় শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এর আগে, ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে দলীয় শ্রদ্ধা নিবেদনে অংশ নেন তিনি।
তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে তার সহধর্মিণী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবসহ পরিবারের ১৮ জন সদস্যকে হত্যা করা হয়েছিল। জাতির ইতিহাসে এতো বেদনাবিধূর দিন আর কখনো আসেনি এ আরেক কারবালা ছিলো ।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

১৫ আগস্টে জিয়া, ২১ আগস্টের পেছনে উত্তরশূরি তারেক: তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী

আপডেট সময় : ০৮:২৪:০০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ অগাস্ট ২০২৩

অনলাইন ডেস্ক।

 

 

তথ্যমন্ত্রী- সম্প্রচার ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঘটিয়েছিল জিয়াউর রহমান আর খালেদা জিয়ার জ্ঞাতসারে ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা ঘটিয়েছিল তারেক রহমান এবং আজকে বিএনপি মানুষ পোড়ানোর রাজনীতিতে মসগুল।

মঙ্গলবার (১৫ আগস্ট) জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সকালে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঘাতকের হাতে নিহত বঙ্গবন্ধুর পরিবারের সদস্যদের সমাধিতে দলীয় শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এর আগে, ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে দলীয় শ্রদ্ধা নিবেদনে অংশ নেন তিনি।
তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে তার সহধর্মিণী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবসহ পরিবারের ১৮ জন সদস্যকে হত্যা করা হয়েছিল। জাতির ইতিহাসে এতো বেদনাবিধূর দিন আর কখনো আসেনি এ আরেক কারবালা ছিলো ।