ঢাকা ১২:৪৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজশাহী সিটি নির্বাচনে ফের নগরপিতা নৌকার মাঝি খায়রুজ্জামান

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:৫৭:০২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ জুন ২০২৩ ৫২ বার পড়া হয়েছে

রাজশাহী প্রতিনিধি।।

রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। রিটার্নিং অফিসার মো. দেলোয়ার হোসেন এ বেসরকারি ফলাফল ঘোষণা করেন।

আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ১৫৫টি কেন্দ্রে ১ লাখ ৫৯ হাজার ৭৯৭ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ইসলামী আন্দোলনের মুরশিদ আলম পেয়েছেন ১৩ হাজার ৩৯৩ ভোট।

এর আগে বুধবার (২১ জুন) সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে শেষ হয় বিকেল ৪টায়। কিন্তু ভোটার উপস্থিতি ছিল খুবই কম। রাজশাহীতে ভোট পড়েছে ২৬ থেকে ৩৩ শতাংশ ভোট।

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছেন চারজন প্রার্থী। যদিও গত ১২ জুন বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর ওপর হামলার অভিযোগে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মেয়র পদপ্রার্থী মাওলানা মুরশিদ আলম নির্বাচন বর্জন করেছেন। অপর তিন মেয়র পদপ্রার্থী হলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সদ্য সাবেক সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম স্বপন এবং জাকের পার্টির অ্যাডভোকেট লতিফ আনোয়ার।

নগরীর ৩০টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে প্রার্থী রয়েছেন ১১২ জন। এদের মধ্যে ২০ নম্বর ওয়ার্ডে একক প্রার্থী থাকায় সেখানে এই পদে নির্বাচন হচ্ছে না। বাকী ২৯টি ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১১১ জন। এ ছাড়া সংরক্ষিত ১০টি ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর পদে রয়েছেন ৪৬ জন। এদের মধ্যে রয়েছেন সুলতানা আহমেদ সাগরিকা নামে একজন তৃতীয় লিঙ্গের প্রার্থী রয়েছেন।

জানা গেছে, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ভোটার রয়েছে তিন লাখ ৫১ হাজার ৮৫২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার এক লাখ ৭১ হাজার ১৬৭ জন, নারী ভোটার এক লাখ ৮০ হাজার ৮০৯ জন এবং তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার রয়েছেন মাত্র ছয়জন। ভোটকেন্দ্র ১৫৫টি এবং ভোটকক্ষ ১ হাজার ১৫৩টি।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

রাজশাহী সিটি নির্বাচনে ফের নগরপিতা নৌকার মাঝি খায়রুজ্জামান

আপডেট সময় : ০৭:৫৭:০২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ জুন ২০২৩

রাজশাহী প্রতিনিধি।।

রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। রিটার্নিং অফিসার মো. দেলোয়ার হোসেন এ বেসরকারি ফলাফল ঘোষণা করেন।

আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ১৫৫টি কেন্দ্রে ১ লাখ ৫৯ হাজার ৭৯৭ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ইসলামী আন্দোলনের মুরশিদ আলম পেয়েছেন ১৩ হাজার ৩৯৩ ভোট।

এর আগে বুধবার (২১ জুন) সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে শেষ হয় বিকেল ৪টায়। কিন্তু ভোটার উপস্থিতি ছিল খুবই কম। রাজশাহীতে ভোট পড়েছে ২৬ থেকে ৩৩ শতাংশ ভোট।

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছেন চারজন প্রার্থী। যদিও গত ১২ জুন বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর ওপর হামলার অভিযোগে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মেয়র পদপ্রার্থী মাওলানা মুরশিদ আলম নির্বাচন বর্জন করেছেন। অপর তিন মেয়র পদপ্রার্থী হলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সদ্য সাবেক সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম স্বপন এবং জাকের পার্টির অ্যাডভোকেট লতিফ আনোয়ার।

নগরীর ৩০টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে প্রার্থী রয়েছেন ১১২ জন। এদের মধ্যে ২০ নম্বর ওয়ার্ডে একক প্রার্থী থাকায় সেখানে এই পদে নির্বাচন হচ্ছে না। বাকী ২৯টি ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১১১ জন। এ ছাড়া সংরক্ষিত ১০টি ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর পদে রয়েছেন ৪৬ জন। এদের মধ্যে রয়েছেন সুলতানা আহমেদ সাগরিকা নামে একজন তৃতীয় লিঙ্গের প্রার্থী রয়েছেন।

জানা গেছে, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ভোটার রয়েছে তিন লাখ ৫১ হাজার ৮৫২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার এক লাখ ৭১ হাজার ১৬৭ জন, নারী ভোটার এক লাখ ৮০ হাজার ৮০৯ জন এবং তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার রয়েছেন মাত্র ছয়জন। ভোটকেন্দ্র ১৫৫টি এবং ভোটকক্ষ ১ হাজার ১৫৩টি।