ঢাকা ০৯:১১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আজ পবিত্র ঈদুল আজহা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:৪১:২৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ জুন ২০২৩ ৮৭ বার পড়া হয়েছে

ডেস্ক রিপোর্ট।।

 

আজ বৃহস্পতিবার (২৯ জুন), মুসলিম ধর্মালম্বীদের ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল আজহা। যথাযথ ধর্মীয় মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে মুসলমানদের অন্যতম এই ধর্মীয় উৎসব পালিত হচ্ছে।

হিজরি বর্ষপঞ্জি অনুসারে ১০ জিলহ্জ অর্থাৎ ২৯ জুন বাংলাদেশে পবিত্র ঈদুল আজহা দিন। সারা বিশ্বে মুসলমানরা মহান আল্লাহর অনুগ্রহের আশায় ঈদের জামাত শেষে পশু কোরবানি করবেন। প্রতিবারের মতো এবারও জাতীয় ঈদগাহে ঈদের প্রধান জামাত সকাল সাড়ে ৭টায় অনুষ্ঠিত হবে। বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ঈদের ৫টি জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

ঈদুল আজহা মুসলিম জাতির পিতা ইব্রাহিম (আ.), বিবি হাজেরা ও ইসমাঈলের পরম ত্যাগের স্মৃতি বিজড়িত উৎসব। জিলহজ মাসে হজ উপলক্ষে সমগ্র পৃথিবী থেকে লাখ লাখ মুসলমান সমবেত হয় ইব্রাহিম (আ.)-এর স্মৃতি বিজড়িত মক্কা-মদিনায়।
ঈদুল আজহা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশবাসীসহ বিশ্বের সব মুসলমানদের আন্তরিক অভিনন্দন ও মোবারকবাদ জানিয়ে পৃথক পৃথক বাণী দিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি হজ পালন করতে সৌদি আরবে অবস্থান করছেন।এক  শুভেচ্ছা জানিয়ে রাষ্ট্রপতি তার বাণীতে বলেন, ‘মহান আল্লাহর প্রতি গভীর আনুগত্য ও সর্বোচ্চ ত্যাগের মহিমায় ভাস্বর পবিত্র ঈদুল আজহা। ‘আজহা’ অর্থ কোরবানি বা উৎসর্গ করা। ঈদুল আজহা উৎসবের সঙ্গে মিশে আছে চরম ত্যাগ ও প্রভু প্রেমের পরাকাষ্ঠা।
ঈদুল আজহা উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী তার বাণীতে বলেন, ‘হজরত ইবরাহিম (আ.) মহান আল্লাহর উদ্দেশে প্রিয় বস্তুকে উৎসর্গের মাধ্যমে তার সন্তুষ্টি লাভে যে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করে গেছেন, তা বিশ্ববাসীর কাছে চিরকাল অনুকরণীয় ও অনুসরণীয় হয়ে থাকবে।’

এ ঈদের অন্যতম কর্মকাণ্ড পশু কোরবানি। ঈদুল আজহার পরের দুই দিনও পশু কোরবানি করার ইসলামে বিধান রয়েছে। পশু জবাই করার ক্ষেত্রে পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখার পরামর্শ দিয়েছে সরকারের বিভিন্ন সংস্থা। ইসলামেও কোরবানির পশু জবাইয়ের ক্ষেত্রে সতর্কতার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। যাতে পরিচ্ছন্নতা বজায় থাকে এবং পরিবেশ দুর্গন্ধময় না হয়।

ঈদের দিন অনেকেই ঈদের নামাজ শেষে কবরস্থানে গিয়ে স্বজনদের জন্যও দোয়া করেন।

ঈদুল আজহা উদযাপন উপলক্ষে দেশের সব হাসপাতাল, কারাগার, সরকারি শিশুসদন, বৃদ্ধ নিবাস, মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হবে। বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস ও মিশনগুলো যথাযথভাবে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন করবে। এ উপলক্ষে সারা দেশে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষার্থে বিশেষ সতর্কমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

আজ পবিত্র ঈদুল আজহা

আপডেট সময় : ০৫:৪১:২৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ জুন ২০২৩

ডেস্ক রিপোর্ট।।

 

আজ বৃহস্পতিবার (২৯ জুন), মুসলিম ধর্মালম্বীদের ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল আজহা। যথাযথ ধর্মীয় মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে মুসলমানদের অন্যতম এই ধর্মীয় উৎসব পালিত হচ্ছে।

হিজরি বর্ষপঞ্জি অনুসারে ১০ জিলহ্জ অর্থাৎ ২৯ জুন বাংলাদেশে পবিত্র ঈদুল আজহা দিন। সারা বিশ্বে মুসলমানরা মহান আল্লাহর অনুগ্রহের আশায় ঈদের জামাত শেষে পশু কোরবানি করবেন। প্রতিবারের মতো এবারও জাতীয় ঈদগাহে ঈদের প্রধান জামাত সকাল সাড়ে ৭টায় অনুষ্ঠিত হবে। বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ঈদের ৫টি জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

ঈদুল আজহা মুসলিম জাতির পিতা ইব্রাহিম (আ.), বিবি হাজেরা ও ইসমাঈলের পরম ত্যাগের স্মৃতি বিজড়িত উৎসব। জিলহজ মাসে হজ উপলক্ষে সমগ্র পৃথিবী থেকে লাখ লাখ মুসলমান সমবেত হয় ইব্রাহিম (আ.)-এর স্মৃতি বিজড়িত মক্কা-মদিনায়।
ঈদুল আজহা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশবাসীসহ বিশ্বের সব মুসলমানদের আন্তরিক অভিনন্দন ও মোবারকবাদ জানিয়ে পৃথক পৃথক বাণী দিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি হজ পালন করতে সৌদি আরবে অবস্থান করছেন।এক  শুভেচ্ছা জানিয়ে রাষ্ট্রপতি তার বাণীতে বলেন, ‘মহান আল্লাহর প্রতি গভীর আনুগত্য ও সর্বোচ্চ ত্যাগের মহিমায় ভাস্বর পবিত্র ঈদুল আজহা। ‘আজহা’ অর্থ কোরবানি বা উৎসর্গ করা। ঈদুল আজহা উৎসবের সঙ্গে মিশে আছে চরম ত্যাগ ও প্রভু প্রেমের পরাকাষ্ঠা।
ঈদুল আজহা উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী তার বাণীতে বলেন, ‘হজরত ইবরাহিম (আ.) মহান আল্লাহর উদ্দেশে প্রিয় বস্তুকে উৎসর্গের মাধ্যমে তার সন্তুষ্টি লাভে যে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করে গেছেন, তা বিশ্ববাসীর কাছে চিরকাল অনুকরণীয় ও অনুসরণীয় হয়ে থাকবে।’

এ ঈদের অন্যতম কর্মকাণ্ড পশু কোরবানি। ঈদুল আজহার পরের দুই দিনও পশু কোরবানি করার ইসলামে বিধান রয়েছে। পশু জবাই করার ক্ষেত্রে পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখার পরামর্শ দিয়েছে সরকারের বিভিন্ন সংস্থা। ইসলামেও কোরবানির পশু জবাইয়ের ক্ষেত্রে সতর্কতার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। যাতে পরিচ্ছন্নতা বজায় থাকে এবং পরিবেশ দুর্গন্ধময় না হয়।

ঈদের দিন অনেকেই ঈদের নামাজ শেষে কবরস্থানে গিয়ে স্বজনদের জন্যও দোয়া করেন।

ঈদুল আজহা উদযাপন উপলক্ষে দেশের সব হাসপাতাল, কারাগার, সরকারি শিশুসদন, বৃদ্ধ নিবাস, মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হবে। বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস ও মিশনগুলো যথাযথভাবে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন করবে। এ উপলক্ষে সারা দেশে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষার্থে বিশেষ সতর্কমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।