ঢাকা ০১:৩৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নারায়নগঞ্জে দু’গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ: নিহত ১ আটক ৪

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:৪৫:১২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ মে ২০২৩ ৯০ বার পড়া হয়েছে

পোড়া তেল ব্যবসার আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ!

 

সমকালীন কাগজ ডেস্ক।।

 

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার ঘারমোড়া এলাকায় পোড়া তেল ব্যবসার আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুগ্রুপ ক্যাপ রোমান ও অনিক গ্রুপের মধ্যে  রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ক্যাপ রোমান (৩৬) নিহত হয়েছে।

শুক্রবার (২৬ মে) রাত সাড়ে ৮টার দিকে বন্দর উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নের ঘারমোড়া বাজারস্থ মরহুম রশীদ সরদারের মার্কেটের সামনে রক্তক্ষয়ী এ সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে।

সূত্র মতে জানা গেছে, নিহত রোমান ওরফে ক্যাপ রোমান বন্দর থানার ১৯নং ওয়ার্ডের মদনগঞ্জ সৈয়াল বাড়ি ঘাট এলাকার আদু মিয়ার ছেলে। রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনার খবর পেয়ে বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মোঃ আবু বকর সিদ্দিকসহ থানা পুলিশের একাধিক টিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এ ঘটনায় এই পর্যন্ত ৪জনকে আটকের কথা জানিয়েছেন বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বকর ছিদ্দিক। তবে এখনো তাদের নাম-পরিচয় প্রকাশ করেনি পুলিশ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এবং স্বাভাবিক রাখতে ঘটনাস্থলে পর্যাপ্ত পুলিশ সদস্য মোতায়েন রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, পোড়া তেলের ব্যবসার নিয়ন্ত্রন নিতে বন্দর উপজেলার ঘারমোড়া সরদার বাড়ি এলাকার মহিদ মিয়ার সন্ত্রাসী ছেলে অনিক গ্রুপের সাথে মদনগঞ্জ সৈয়লবাড়ী ঘাট এলাকার আদু মিয়ার ছেলে রোমান ওরফে ক্যাপ রোমান গ্রুপের দীর্ঘ দিন ধরে শত্রুতা চলছিল। ইতিপূর্বে দুই গ্রুপের মধ্যে কয়েকবার ভয়াবহ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বকর সিদ্দিক জানান,আমরা সংঘর্ষের ঘটনার খবর পেয়ে আমিসহ বন্দর থানার একাধিক টিম দ্রুত ঘটনাস্থলে আসি। এসে জানতে পারি পোড়া তেলের ব্যবসাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়েছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করলেও, বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। এ ঘটনায় দুই গ্রপের একজনকে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় এলাকাবাসী রোমান ওরফে ক্যাপ রোমানকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষনা করে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।এঘটনায় চারজনকে আটক করা হয়েছে, বাকী সকলকে দ্রুত গ্রেফতারে পুলিশের বিশেষ অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

নারায়নগঞ্জে দু’গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ: নিহত ১ আটক ৪

আপডেট সময় : ০৭:৪৫:১২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ মে ২০২৩

পোড়া তেল ব্যবসার আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ!

 

সমকালীন কাগজ ডেস্ক।।

 

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার ঘারমোড়া এলাকায় পোড়া তেল ব্যবসার আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুগ্রুপ ক্যাপ রোমান ও অনিক গ্রুপের মধ্যে  রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ক্যাপ রোমান (৩৬) নিহত হয়েছে।

শুক্রবার (২৬ মে) রাত সাড়ে ৮টার দিকে বন্দর উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নের ঘারমোড়া বাজারস্থ মরহুম রশীদ সরদারের মার্কেটের সামনে রক্তক্ষয়ী এ সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে।

সূত্র মতে জানা গেছে, নিহত রোমান ওরফে ক্যাপ রোমান বন্দর থানার ১৯নং ওয়ার্ডের মদনগঞ্জ সৈয়াল বাড়ি ঘাট এলাকার আদু মিয়ার ছেলে। রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনার খবর পেয়ে বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মোঃ আবু বকর সিদ্দিকসহ থানা পুলিশের একাধিক টিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এ ঘটনায় এই পর্যন্ত ৪জনকে আটকের কথা জানিয়েছেন বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বকর ছিদ্দিক। তবে এখনো তাদের নাম-পরিচয় প্রকাশ করেনি পুলিশ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এবং স্বাভাবিক রাখতে ঘটনাস্থলে পর্যাপ্ত পুলিশ সদস্য মোতায়েন রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, পোড়া তেলের ব্যবসার নিয়ন্ত্রন নিতে বন্দর উপজেলার ঘারমোড়া সরদার বাড়ি এলাকার মহিদ মিয়ার সন্ত্রাসী ছেলে অনিক গ্রুপের সাথে মদনগঞ্জ সৈয়লবাড়ী ঘাট এলাকার আদু মিয়ার ছেলে রোমান ওরফে ক্যাপ রোমান গ্রুপের দীর্ঘ দিন ধরে শত্রুতা চলছিল। ইতিপূর্বে দুই গ্রুপের মধ্যে কয়েকবার ভয়াবহ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বকর সিদ্দিক জানান,আমরা সংঘর্ষের ঘটনার খবর পেয়ে আমিসহ বন্দর থানার একাধিক টিম দ্রুত ঘটনাস্থলে আসি। এসে জানতে পারি পোড়া তেলের ব্যবসাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়েছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করলেও, বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। এ ঘটনায় দুই গ্রপের একজনকে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় এলাকাবাসী রোমান ওরফে ক্যাপ রোমানকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষনা করে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।এঘটনায় চারজনকে আটক করা হয়েছে, বাকী সকলকে দ্রুত গ্রেফতারে পুলিশের বিশেষ অভিযান অব্যাহত রয়েছে।