ঢাকা ০৩:১৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আগামী নির্বাচন ভোটাধিকার নিশ্চিত রেখেই অবাধ,সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে: প্রধানমন্ত্রী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:৩১:১৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ মে ২০২৩ ৯৬ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন নিউজ ডেস্ক।।

প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশে আসন্ন সাধারণ নির্বাচন আমাদের সরকারের অধীনেই দেশের গণতন্ত্র ও জনগণের ভোটাধিকার নিশ্চিত ও সমুন্নত রেখেই অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

বুধবার(২৪ মে) দোহার একটি হোটেলে কাতার ইকোনোমিক ফোরামে‘বাংলাদেশী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কথোপকথন’শীর্ষক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের আগামী নির্বাচন নিয়ে এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন।

কিউইএফ এর হোস্ট এবং এডিটর হাসলিন্দা আমিন অনুষ্ঠানস্থলে জনাকীর্ণ হলরুমে এ কথোপকথন অধিবেশন পরিচালনা করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমার দেশের সাধারন জনগণই ঠিক করবে কে আগামীতে দেশ চালাতে সক্ষম,কে চালাবে। এটা একমাত্র জনগণেরই ক্ষমতা। এজন্য আমি জনগণের ক্ষমতা সুনিশ্চিত করতে বদ্ধ পরিকর । আমি জনগণকে তাদের অধিকার দিতে চাই,যাতে করে তারা তাদের পছন্দের সরকারকে বেছে নিতে পারে।

কোনো কোনো দলের নির্বাচনে অংশ নিতে অনিচ্ছুক হওয়ার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তারা কীভাবে অংশগ্রহণ করতে পারে? কারণ তাদের সময় দেশ অনেকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। দেশের জনগণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল এবং সে সময় (বিএনপির শাসনামলে) সন্ত্রাস, দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতি, শোষণ ছিল সর্বত্র। তারা কখনই সাধারণ জনগনকে নিয়ে ভাবেনি। জনগণের জন্য একদিনে একবেলা খাবার পাওয়া খুবই কঠিন ছিল। এটাই তাদের অবস্থা ছিলো।

আওয়ামী লীগের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর জনগণের সবকিছু নিশ্চিত করেছে। তাই এখন নির্বাচন, এটা তো জনগণের অধিকার। আমরা জনগণের জন্য কি এবং কতটুকু করেছি,সাধারণ জনগন তা বুঝতে পেরেছে। তারা যদি আমাদের ভোট দেয়, আমি আছি, যদি না দেয়, ঠিক আছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের কথা চিন্তা করুন, মি. ট্রাম্প এখনো ফলাফল মেনে নেননি। তারা এখন কি বলতে পারেন?

তিনি আরও বলেন,যারাই পর্যবেক্ষক পাঠাতে চায়,আমি তাদের সবাইকে বলেছি, তারা যদি পর্যবেক্ষক পাঠাতে চায় তবে তারা পাঠাতে পারে কোনো বাধা নেই। অতএব আমি আপনাকে বলতে পারি যে আমি এখানে আমার জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার সহ ভোটের অধিকার নিশ্চিত করতে এসেছি এবং এটি আমাদের সংগ্রাম।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

আগামী নির্বাচন ভোটাধিকার নিশ্চিত রেখেই অবাধ,সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে: প্রধানমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০৬:৩১:১৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ মে ২০২৩

অনলাইন নিউজ ডেস্ক।।

প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশে আসন্ন সাধারণ নির্বাচন আমাদের সরকারের অধীনেই দেশের গণতন্ত্র ও জনগণের ভোটাধিকার নিশ্চিত ও সমুন্নত রেখেই অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

বুধবার(২৪ মে) দোহার একটি হোটেলে কাতার ইকোনোমিক ফোরামে‘বাংলাদেশী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কথোপকথন’শীর্ষক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের আগামী নির্বাচন নিয়ে এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন।

কিউইএফ এর হোস্ট এবং এডিটর হাসলিন্দা আমিন অনুষ্ঠানস্থলে জনাকীর্ণ হলরুমে এ কথোপকথন অধিবেশন পরিচালনা করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমার দেশের সাধারন জনগণই ঠিক করবে কে আগামীতে দেশ চালাতে সক্ষম,কে চালাবে। এটা একমাত্র জনগণেরই ক্ষমতা। এজন্য আমি জনগণের ক্ষমতা সুনিশ্চিত করতে বদ্ধ পরিকর । আমি জনগণকে তাদের অধিকার দিতে চাই,যাতে করে তারা তাদের পছন্দের সরকারকে বেছে নিতে পারে।

কোনো কোনো দলের নির্বাচনে অংশ নিতে অনিচ্ছুক হওয়ার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তারা কীভাবে অংশগ্রহণ করতে পারে? কারণ তাদের সময় দেশ অনেকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। দেশের জনগণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল এবং সে সময় (বিএনপির শাসনামলে) সন্ত্রাস, দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতি, শোষণ ছিল সর্বত্র। তারা কখনই সাধারণ জনগনকে নিয়ে ভাবেনি। জনগণের জন্য একদিনে একবেলা খাবার পাওয়া খুবই কঠিন ছিল। এটাই তাদের অবস্থা ছিলো।

আওয়ামী লীগের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর জনগণের সবকিছু নিশ্চিত করেছে। তাই এখন নির্বাচন, এটা তো জনগণের অধিকার। আমরা জনগণের জন্য কি এবং কতটুকু করেছি,সাধারণ জনগন তা বুঝতে পেরেছে। তারা যদি আমাদের ভোট দেয়, আমি আছি, যদি না দেয়, ঠিক আছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের কথা চিন্তা করুন, মি. ট্রাম্প এখনো ফলাফল মেনে নেননি। তারা এখন কি বলতে পারেন?

তিনি আরও বলেন,যারাই পর্যবেক্ষক পাঠাতে চায়,আমি তাদের সবাইকে বলেছি, তারা যদি পর্যবেক্ষক পাঠাতে চায় তবে তারা পাঠাতে পারে কোনো বাধা নেই। অতএব আমি আপনাকে বলতে পারি যে আমি এখানে আমার জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার সহ ভোটের অধিকার নিশ্চিত করতে এসেছি এবং এটি আমাদের সংগ্রাম।