ঢাকা ১২:১৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অং সান সু চি ও প্রেসিডেন্ট উইনকে ক্ষমা ঘোষণা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:৪৬:২৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১ অগাস্ট ২০২৩ ৫৩ বার পড়া হয়েছে
আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।
মিয়ানমারের বেসামরিক নেত্রী অং সান সু চিকে সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করেছে দেশটির সামরিক সরকার। ২০২১ সালের সামরিক অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর থেকে বন্দি ছিলেন অং সান সুচি।
একই সাথে প্রেসিডেন্ট উইন মিন্টেকেও সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করা হয়।
মূলত তারা দুজনেই ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারির অভ্যুত্থানের পর থেকে কারাগারে ছিলেন। সু চি ১৯টি অপরাধের দায়ে দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। এর ফলে তার ৩৩ বছর কারাদণ্ড হয়।
তবে অং সান সু চি ও উইন মিন্টকে পুরোপুরি ক্ষমা করে দেওয়া না হলেও তাদের শাস্তি কম করা হবে বলে জানা গেছে।
মঙ্গলবার(১ আগস্ট) দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, ৭ হাজারেরও বেশি কারাবন্দিকে সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করা হয়েছে।
খবরে বলা হয়েছে, ‘সংশ্লিষ্ট আদালতের সাজাপ্রাপ্ত আসামি অং সান সু চিকে সাধারণ ক্ষমা করেছেন রাষ্ট্রীয় প্রশাসন কাউন্সিলের চেয়ারম্যান।
তবে মিয়ানমারে জরুরি অবস্থার মেয়াদ নতুন করে আরও ছয় মাস বাড়ানো হয়েছে। সোমবার দেশটির ন্যাশনাল ডিফেন্স ও সিকিউরিটি কাউন্সিল (এনডিএসসি ) জরুরি অবস্থার এ মেয়াদ বাড়ানোর বিষয়ে সম্মত হয়।
ফলে জান্তা সরকার আগস্টে নির্বাচন দেয়ার অঙ্গীকার করলেও এতে বিলম্ব ঘটবে বলেই বিশ্লেষকরা বলছেন। কারণ হিসেবে,  দেশটির সংবিধান অনুযায়ী জরুরি অবস্থার মেয়াদ বাড়ানোর কারনে নির্বাচনের তারিখ আরো পিছিয়ে যাবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

অং সান সু চি ও প্রেসিডেন্ট উইনকে ক্ষমা ঘোষণা

আপডেট সময় : ০৫:৪৬:২৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১ অগাস্ট ২০২৩
আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।
মিয়ানমারের বেসামরিক নেত্রী অং সান সু চিকে সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করেছে দেশটির সামরিক সরকার। ২০২১ সালের সামরিক অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর থেকে বন্দি ছিলেন অং সান সুচি।
একই সাথে প্রেসিডেন্ট উইন মিন্টেকেও সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করা হয়।
মূলত তারা দুজনেই ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারির অভ্যুত্থানের পর থেকে কারাগারে ছিলেন। সু চি ১৯টি অপরাধের দায়ে দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। এর ফলে তার ৩৩ বছর কারাদণ্ড হয়।
তবে অং সান সু চি ও উইন মিন্টকে পুরোপুরি ক্ষমা করে দেওয়া না হলেও তাদের শাস্তি কম করা হবে বলে জানা গেছে।
মঙ্গলবার(১ আগস্ট) দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, ৭ হাজারেরও বেশি কারাবন্দিকে সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করা হয়েছে।
খবরে বলা হয়েছে, ‘সংশ্লিষ্ট আদালতের সাজাপ্রাপ্ত আসামি অং সান সু চিকে সাধারণ ক্ষমা করেছেন রাষ্ট্রীয় প্রশাসন কাউন্সিলের চেয়ারম্যান।
তবে মিয়ানমারে জরুরি অবস্থার মেয়াদ নতুন করে আরও ছয় মাস বাড়ানো হয়েছে। সোমবার দেশটির ন্যাশনাল ডিফেন্স ও সিকিউরিটি কাউন্সিল (এনডিএসসি ) জরুরি অবস্থার এ মেয়াদ বাড়ানোর বিষয়ে সম্মত হয়।
ফলে জান্তা সরকার আগস্টে নির্বাচন দেয়ার অঙ্গীকার করলেও এতে বিলম্ব ঘটবে বলেই বিশ্লেষকরা বলছেন। কারণ হিসেবে,  দেশটির সংবিধান অনুযায়ী জরুরি অবস্থার মেয়াদ বাড়ানোর কারনে নির্বাচনের তারিখ আরো পিছিয়ে যাবে।