ঢাকা ০৪:১৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে বন্যার শঙ্কা, ভেঙে যাচ্ছে রাস্তা ঘাট

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:২৭:২৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৭ জুন ২০২৩ ৬৭ বার পড়া হয়েছে

দোয়ারাবাজার (সুনামগঞ্জ)সংবাদদাতা।।

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে গত চারদিনের টানা বর্ষণ ও ভারতের মেঘালয় থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সুরমা, চেলা, মরা চেলা, চিলাই, চলতি, কালিউরি, খাসিয়ামারা ও ধুমখালীসহ উপজেলার সকল নদী-নালা, হাওড়, খাল-বিলে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় বন্যার আশংকা করা হচ্ছে। পাহাড়ি ঢলে খাসিয়ামারা নদীর উপচেপড়া স্রোতে উপজেলার লক্ষীপুর ইউনিয়নের রসরাই-ক্যাপ্টেন হেলাল-খসরু উচ্চ বিদ্যালয় রাস্তায় হু হু করে পানি ঢুকতে থাকলে স্থানীয়দের প্রাণপণ চেষ্টায় তা রোধ করা সক্ষম হয়।

নিচু এলাকা ও হাওড়পাড়ের লোকজন রয়েছেন সারাক্ষণ শঙ্কিত। কেননা গত বছরের এ সময়ে স্মরণকালের সেই ভয়াবহ সর্বগ্রাসী বন্যার ক্ষতচিহ্ন আর দূর্দশার কথ এখনো ভুলতে পারেননি ভুক্তভোগী মানুষজন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। সুনামগঞ্জের পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মামুন হাওলাদার জানান গত ৪৮ ঘন্টায় সুনামগঞ্জসহ ভারতের চেরাপুঞ্জি ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় দুই শতাধিক মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। আরো কয়েকদিন ভারি বৃষ্টিপাতের অশংকা রয়েছে বলে তিনি জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে বন্যার শঙ্কা, ভেঙে যাচ্ছে রাস্তা ঘাট

আপডেট সময় : ১২:২৭:২৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৭ জুন ২০২৩

দোয়ারাবাজার (সুনামগঞ্জ)সংবাদদাতা।।

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে গত চারদিনের টানা বর্ষণ ও ভারতের মেঘালয় থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সুরমা, চেলা, মরা চেলা, চিলাই, চলতি, কালিউরি, খাসিয়ামারা ও ধুমখালীসহ উপজেলার সকল নদী-নালা, হাওড়, খাল-বিলে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় বন্যার আশংকা করা হচ্ছে। পাহাড়ি ঢলে খাসিয়ামারা নদীর উপচেপড়া স্রোতে উপজেলার লক্ষীপুর ইউনিয়নের রসরাই-ক্যাপ্টেন হেলাল-খসরু উচ্চ বিদ্যালয় রাস্তায় হু হু করে পানি ঢুকতে থাকলে স্থানীয়দের প্রাণপণ চেষ্টায় তা রোধ করা সক্ষম হয়।

নিচু এলাকা ও হাওড়পাড়ের লোকজন রয়েছেন সারাক্ষণ শঙ্কিত। কেননা গত বছরের এ সময়ে স্মরণকালের সেই ভয়াবহ সর্বগ্রাসী বন্যার ক্ষতচিহ্ন আর দূর্দশার কথ এখনো ভুলতে পারেননি ভুক্তভোগী মানুষজন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। সুনামগঞ্জের পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মামুন হাওলাদার জানান গত ৪৮ ঘন্টায় সুনামগঞ্জসহ ভারতের চেরাপুঞ্জি ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় দুই শতাধিক মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। আরো কয়েকদিন ভারি বৃষ্টিপাতের অশংকা রয়েছে বলে তিনি জানান।