ঢাকা ১২:২০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নারায়ণগঞ্জে গোয়েন্দা তথ্যে ভুয়া ডাক্তার আটক,ডায়াগনস্টিক সীলগালা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:২৬:৩৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ মে ২০২৩ ৮২ বার পড়া হয়েছে
বিশেষ প্রতিনিধি।।
নারায়ণগঞ্জ শহরে একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান চালিয়ে এক ভুয়া এমবিবিএস ডাক্তারকে আটক করে এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে জেলা প্রশাসন কতৃক পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত।
রবিবার (২১ মে) দুপুর ২টার দিকে নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রানকেন্দ্র ডিআইটি এলাকায় অবস্থিত ‘সুপার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে জেলার গোয়েন্দা সংস্থার তথ্য সূত্রে অভিযান চালায় ভ্রাম্যমান মোবাইল কোর্ট।
এ সময় সুপার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে দায়িত্বরত কনসালটেন্ট সনোলজিস্ট (এমবিবিএস) ভুয়া ডাক্তার মোস্তফা মিজানুর রহমানকে আটক করে। এসময় ভ্রাম্যমাণ আদালত তার কাগজপত্র চ্যালেঞ্জ করলে এমবিবিএ সহ অন্যান্য কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হলে, ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নুশরাত আরা খানম প্রচলিত আইন অনুযায়ী তাকে বিনাশ্রম এক বছরের কারাদণ্ড প্রদান করে, পাশাপাশি  ‘সুপার ডায়াগনস্টিক সেন্টারটি সিলগালা করে দেয়া হয়।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নুশরাত আরা খানম বলেন, শহরের ব্যস্ততম স্থানের মধ্যে ‘সুপার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে কোনো ধরনের কাগজপত্র যাচাই-বাছাই ছাড়াই ওই ব্যক্তিকে আলট্রাসনোগ্রাম বিভাগে নিয়োগ দেয় ডায়াগনস্টিক কর্তৃপক্ষ। আটককৃত মিজানুর রহমান নিজেকে ভুয়া ডাক্তার হিসেবে স্বীকার করেন।
এ ঘটনায় সুপার ডায়াগনস্টিক সেন্টার মালিকানাপর্শদের সরকারী কাজে অসহযোগিতা ও যাচাই-বাছাই ব্যথিত ডাক্তার নিয়োগে উপযুক্ত কোনো ধরনের কাগজপত্র দেখাতে না পারার অপরাধে ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ১ লক্ষ টাকা অর্থদন্ড ও সীলগালা সহ সতর্ক করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

নারায়ণগঞ্জে গোয়েন্দা তথ্যে ভুয়া ডাক্তার আটক,ডায়াগনস্টিক সীলগালা

আপডেট সময় : ১১:২৬:৩৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ মে ২০২৩
বিশেষ প্রতিনিধি।।
নারায়ণগঞ্জ শহরে একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান চালিয়ে এক ভুয়া এমবিবিএস ডাক্তারকে আটক করে এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে জেলা প্রশাসন কতৃক পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত।
রবিবার (২১ মে) দুপুর ২টার দিকে নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রানকেন্দ্র ডিআইটি এলাকায় অবস্থিত ‘সুপার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে জেলার গোয়েন্দা সংস্থার তথ্য সূত্রে অভিযান চালায় ভ্রাম্যমান মোবাইল কোর্ট।
এ সময় সুপার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে দায়িত্বরত কনসালটেন্ট সনোলজিস্ট (এমবিবিএস) ভুয়া ডাক্তার মোস্তফা মিজানুর রহমানকে আটক করে। এসময় ভ্রাম্যমাণ আদালত তার কাগজপত্র চ্যালেঞ্জ করলে এমবিবিএ সহ অন্যান্য কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হলে, ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নুশরাত আরা খানম প্রচলিত আইন অনুযায়ী তাকে বিনাশ্রম এক বছরের কারাদণ্ড প্রদান করে, পাশাপাশি  ‘সুপার ডায়াগনস্টিক সেন্টারটি সিলগালা করে দেয়া হয়।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নুশরাত আরা খানম বলেন, শহরের ব্যস্ততম স্থানের মধ্যে ‘সুপার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে কোনো ধরনের কাগজপত্র যাচাই-বাছাই ছাড়াই ওই ব্যক্তিকে আলট্রাসনোগ্রাম বিভাগে নিয়োগ দেয় ডায়াগনস্টিক কর্তৃপক্ষ। আটককৃত মিজানুর রহমান নিজেকে ভুয়া ডাক্তার হিসেবে স্বীকার করেন।
এ ঘটনায় সুপার ডায়াগনস্টিক সেন্টার মালিকানাপর্শদের সরকারী কাজে অসহযোগিতা ও যাচাই-বাছাই ব্যথিত ডাক্তার নিয়োগে উপযুক্ত কোনো ধরনের কাগজপত্র দেখাতে না পারার অপরাধে ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ১ লক্ষ টাকা অর্থদন্ড ও সীলগালা সহ সতর্ক করা হয়।